আইএসপি লাইসেন্সধারীরা ক্যাবল টিভি ব্যবসা করতে পারবে না: বিটিআরসি

আইএসপি লাইসেন্সধারীরা ক্যাবল টিভি ব্যবসা করতে পারবে না: বিটিআরসি
আইএসপি লাইসেন্সধারীরা ক্যাবল টিভি ব্যবসা করতে পারবে না: বিটিআরসি

ইন্টারনেট সার্ভিস প্রভাইডার বা আইএসপি লাইসেন্সধারী ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান স্যাটেলাইট ব্রাষ্টিং চ্যানেল সার্ভিস ক্যাবল টিভি ব্যবসা পরিচালনা করতে পারবে না।

১৫ এপ্রিল, আইএসপি প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রতি এমন নির্দেশনা দিয়েছে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন বিটিআরসি।

নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি আরও জানিয়েছে, আইএসপি লাইসেন্সধারী ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান স্যাটেলাইট ব্রডকাষ্টিং, চ্যানেল সার্ভিস বা ক্যাবল টিভি ব্যবসা পরিচালনাকারীকে ইন্টারনেট সেবা প্রদান কাজে নিয়ােগ প্রদান বা নিযুক্ত করতে পারবে না।

বিটিআরসি নতুন নির্দেশনায় জানিয়েছে, কমিশনের লাইসেন্সধারী আইএসপি প্রতিষ্ঠান বাদেও সারাদেশের পাড়া-মহল্লায় বিভিন্ন নামে অসংখ্য লাইসেন্সবিহীন সংস্থা প্রতিষ্ঠান বা ব্যক্তি অবৈধভাবে ইন্টারনেট সেবা দিচ্ছে।

নিয়ন্ত্রক সংস্থার ভাষ্য, অবৈধ ইন্টারনেট ব্যবসায়ীদের স্থাপনাটি লাইসেন্সধারী আইএসপি প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের পপ বা রিসেলার বা ডিস্ট্রিবিউটর ঘােষণা করে অবৈধভাবে ইন্টারনেট সেবা প্রদানের সুযােগ করে দিচ্ছে, যার প্রেক্ষিতে অবৈধ টেলিযােগাযােগ স্থাপনার সংখ্যা ক্রমাগত বৃদ্ধি পাচ্ছে। যা আইএসপি লাইসেন্সিং গাইডলাইন ও বাংলাদেশ টেলিযােগাযোগ নিয়ন্ত্রণ আইন, ২০০১ এর ব্যত্যয়।

নতুন নির্দেশনায় বিটিআরসি আইএসপি প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রতি আরও কয়েকটি নির্দেশনা দিয়েছে। সেগুলো হলো-

১) সব আইএসপি প্রতিষ্ঠানকে তাদের অনুমােদিত পপ লাইসেন্সের কপি, গ্রাহকের বিলের কপি, গ্রাহক তালিকা (হার্ড কপি ও সফট কপি), বাড়ি ভাড়ার চুক্তিপত্র, পপ পরিচালনাকারীর দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তার নাম, জাতীয় পরিচয়পত্র, ফোন নম্বর, স্থাপিত যন্ত্রপাতির তালিকা সংরক্ষণ করতে হবে।

২) কমিশন অনুমােদিত লাইসেন্সধারী আইএসপি’র প্রতিটি পপ সাইটে নিজস্ব সাইনবাের্ড থাকতে হবে, এক্ষেত্রে অন্য কোনো নাম সাইন বা ব্রান্ড ব্যবহার করা যাবে না; একই সাথে প্রতিটি আইএসপি’কে তাদের অনুমােদিত পপ এর বিস্তারিত তালিকা নিজস্ব ওয়েবসাইটে প্রকাশ করতে হবে।

৩) কোন আইএসপি’র বরাদ্দপ্রাপ্ত ঘােষণাকৃত আইপি অ্যাড্রেস বা অটোনোমাস সিস্টেম নম্বর অন্য আইএসপি কর্তৃক লিজ বা পুনঃবরাদ্দ বা ব্যবহারের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে যথাযথভাবে চুক্তিপত্র সম্পাদনপূর্বক চুক্তিপত্রের কপি কমিশনের ইএন্ডও বিভাগে দাখিল করতে হবে এবং নিবন্ধিত অফিস ঠিকানাসহ অনুমােদিত পপ সংরক্ষণ করতে হবে।

৪) লাইসেন্সপ্রাপ্ত ইন্টারনেট সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানকে সেবা প্রদানের ক্ষেত্রে বাধা প্রদান কিংবা কোন প্রকার প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করা যাবে না। আইএসপি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে প্রতিযােগিতার পরিবেশ বজায় রাখতে হবে যাতে গ্রাহকরা তাদের পছন্দ অনুযায়ী ইন্টারনেট সংযােগ গ্রহণ ও বর্জন করতে পারে। এরূপ কোন বিষয় পরিলক্ষিত হলে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে লাইসেন্স বাতিলসহ আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

৫) এলাকা ভিত্তিক নামে-বেনামে গড়ে ওঠা বিভিন্ন অ্যাসোসিয়েশন বা সংস্থা বা সমিতি কল্যাণ সংস্থার সাথে মিলে কিছু আইএসপি প্রতিষ্ঠান অন্য লাইসেন্সধারী আইএসপিদের সংশ্লিষ্ট এলাকায় ইন্টারনেট সেবা প্রদানে বাঁধা প্রদান করছে। ফলে লাইসেন্সধারী আইএসপি প্রতিষ্ঠানগুলোর লাইসেন্স থাকা সত্ত্বেও সংশ্লিষ্ট এলাকায় ইন্টারনেট সেবা প্রদানে ব্যর্থ হচ্ছে মর্মে আইএসপিএবির মাধ্যমে জানানাে হয়েছে। এ বিষয়ে লাইসেন্সধারী সকল আইএসপি প্রতিষ্ঠানসমূহকে এ ধরনের কার্যক্রম থেকে বিরত থাকতে হবে।

যারা এসব নির্দেশনা মানবে না তাদের বিরুদ্ধে ‘বাংলাদেশ টেলিযােগাযােগ নিয়ন্ত্রণ আইন, ২০০১’ অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানিয়েছে বিটিআরসি।

বিটিআরসির নতুন নির্দেশনাটি পাওয়া যাবে এই লিঙ্কে ক্লিক করে।

আইএসপি,ক্যাবল টিভি,বিটিআরসি
আরও পড়ুন -
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়