শিরোনাম

রবিবার, জুলাই 23, 2017 - ‘স্টাডি ইন ইন্ডিয়া’ এর উদ্বোধন | রবিবার, জুলাই 23, 2017 - শক্তিশালী ব্যাটারির সাশ্রয়ী স্মার্টফোন আনল ওয়ালটন | রবিবার, জুলাই 23, 2017 - তথ্যপ্রযুক্তি খাতে দক্ষ জনবল তৈরী করছে বর্তমান সরকার -জুনাইদ আহমেদ পলক | রবিবার, জুলাই 23, 2017 - হুয়াওয়ে লাকি ডে | রবিবার, জুলাই 23, 2017 - দারাজে এখন সম্পূর্ণ ইন্টারেস্ট বিহীন ইএমআই পেমেন্ট | শনিবার, জুলাই 22, 2017 - লিংকসীস এর ১৯০০ এমবিপিএস গতির ডুয়াল-ব্যান্ড ওয়্যারলেস রাউটার | শনিবার, জুলাই 22, 2017 - আগামী মাসে স্যামসাং আনছে নতুন ডিভাইস | শনিবার, জুলাই 22, 2017 - আইটি খাতে কর্মসংস্থান আগামী বছর আরও কমবে:নাসকম | শনিবার, জুলাই 22, 2017 - সনির ২৩ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরার স্মার্টফোন | শনিবার, জুলাই 22, 2017 - ঢাকায় অনুষ্ঠিত হলো সিগেট ডিলার মিট |
প্রথম পাতা / ইভেন্ট / অনুষ্ঠিত হলো টেলিনর ইয়ুথ ফোরামের চূড়ান্ত পর্ব
অনুষ্ঠিত হলো টেলিনর ইয়ুথ ফোরামের চূড়ান্ত পর্ব

অনুষ্ঠিত হলো টেলিনর ইয়ুথ ফোরামের চূড়ান্ত পর্ব

telenor-youth-forum

গ্রামীণফোন  বাংলাদেশে টেলিনর ইয়ুথ ফোরামের ৩য় পর্ব সংস্করণ শেষ করেছে। এই নোবেল পিস সেন্টারের সহযোগিতায় আয়োজিত এই ফোরামে ১৩টি দেশের ১৮ থেকে ২৮ বছরের তরুণ তরুণীরা জীবন বদলানো ধারণা উপস্থাপনের সুযোগ পাবে। এবছরের ফোরামের মূলভাব “সবার জন্য শিক্ষা।”

বাংলাদেশের প্রতিযোগীদের জন্য গ্র্যান্ড ফিনালে অনুষ্ঠিত হয় ১০ অক্টোবর ২০১৫ তারিখে অনুষ্ঠিত হয়। এবছরের বিজয়ী ধারণাগুলো হচ্ছে মুঠোস্কুল, দি লেফট সাইড ক্লাসরুম এবং দি গ্লাস রুম। টেলিনর গ্রুপ এখন এই সেরা তিন আইডিয়া থেকে অসলোতে অনুষ্ঠিতব্য ফোরমে বাংলাদেশের প্রতিনিধি বাছাই করবে। কঠোর বাছাই প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে নির্বাচিত ৭ জন প্রতিযোগী গ্রামীণফোন কর্মকর্তা, বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক, দেশীয় উদ্যোগতাদের সমন্বয়ে গঠিত বিচারক প্যানেল এবং সরকারি কর্মকর্তা ,সাংবাদিক, ডিজিটাল ও সোশাল মিডিয়া বিশেষজ্ঞ, বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে তাদের ধারণা উপস্থাপন করে। এই সাত জনের মধ্যে তিনজনকে ডিসেম্বরের ৮ থেকে ১১ তারিখের মধ্যে অসলোতে অনুষ্ঠিতব্য চূড়ান্ত পর্বের জন্য নির্বাচিত হন।  শিক্ষামন্ত্রী নরুল ইসলাম নাহিদ, বাংলাদেশে নরওয়ের রাষ্ট্রদূত মেরেটে লুনডেমো এবং গ্রামীণফোনের সিইও রাজীব শেঠি অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

এ পর্বের বিজয়ীরা বিশ্বের অন্যান্য স্থানের বিজয়ীদের সাথে অসলোতে তিনদির সম্মেলনে মিলিত হবে যেখানে তরুণ বিজয়ীরা মোবাইল ও ডিজিটাল প্রযুক্তির রূপান্তরের ক্ষমতাকে বোঝার চেষ্টা করবে। তারা নোবেল শান্তি পুরষ্কার প্রদান অনুষ্ঠানে অংশ নেয়ারও সুযোগ পাবেন। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে মন্ত্রী বলেন, আমি গ্রামীণফোনকে এই অনুষ্ঠান আয়োজনের জন্য ধন্যবাদ জানাচ্ছি। এই অনুষ্ঠান আমাদের তরুণদের ভিশন ২০২১ এর প্রস্তুতি নিতে উৎসাহ দিচ্ছে। এই উদ্যোগ তরুণদের শুধু জাতীয় পর্যায়েই নয় বরং আন্তর্জাতিক পর্যায়ে প্রযুক্তি ও দক্ষতা দ্বারা ক্ষমতায়ন করছে।

গ্রামীণফোন এবছরের আগস্ট মাসে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে টেলিনর ইয়ুথ ফোরামের সূচনা ঘোষণা করে। প্রতিষ্ঠানটি শিক্ষার্থী এবং আগ্রহী প্রতিযোগীদের ধারণা পত্র জমা দিতে আহবান জানায়। অনুষ্ঠানে নরওয়ের রাষ্ট্রদূত বলেন,”বাংলাদেশ একটি নবীন ও গতিশীল রাষ্ট্র যার জনগণও নবীন ও গতিশীল। আজকের প্রজন্মের যে সৃষ্টশীলতা ও দক্ষতা আছে তা বাংলাদেশের উন্নয়নে কাজে লাগবে। এই প্রজন্ম প্রযুক্তি ব্যবহার করে আজকের পর্যায়ে এসেছে এবং তাদের এখন এই প্রযুক্তিকে সারা দেশে সবার কাছে পৌছে দিতে হবে। এই কাজে গ্রামীণফোন এবং টেলিনর ইয়ুথ ফোরাম হতে পারে কার্যকর সহযোগী। গ্রামীণফোন এবং টেলিনর গ্রুপের লক্ষ্য হচ্ছে সামাজিক ক্ষমতায়ন। ইয়ুথ ফোরামের মাধ্যমে টেলিনর সাধারণ মানুষের জীবনে ইতিবাচক পরিবর্তন আনতে ডিজিটাল ও মোবাইল প্রযুক্তির ব্যবহারে তরুনদের ক্ষমতায়ন করছে।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top