শিরোনাম

শনিবার, সেপ্টেম্বর 23, 2017 - ৭-১০ ডিসেম্বর বাংলাদেশে অ্যাপিকটা অ্যাওয়ার্ডস ২০১৭ | শনিবার, সেপ্টেম্বর 23, 2017 - ঢাকায় জাবরা করপোরেট নাইট অনুষ্ঠিত | শনিবার, সেপ্টেম্বর 23, 2017 - ২৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরার সনি এক্সপেরিয়া এক্সএ১ প্লাস | শনিবার, সেপ্টেম্বর 23, 2017 - গো কিবোর্ড হাতাচ্ছে ব্যবহারকারীদের তথ্য | শনিবার, সেপ্টেম্বর 23, 2017 - বন্ধ হয়ে যাচ্ছে ইউটিউবে পেইড চ্যানেল সেবা | শনিবার, সেপ্টেম্বর 23, 2017 - হুয়াওয়ের চার ক্যামেরার স্মার্টফোন উন্মুক্ত | শনিবার, সেপ্টেম্বর 23, 2017 - কাগজের মতো ভাঁজ হয়ে যাবে স্যামসংয়ের নতুন এই স্মার্টফোন | শনিবার, সেপ্টেম্বর 23, 2017 - কী এই হাইড্রোজেন বোমা ও আণবিক বোমা? | শনিবার, সেপ্টেম্বর 23, 2017 - লন্ডনে ব্যবসা হারাতে যাচ্ছে উবার! | বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর 21, 2017 - গাড়ি চালাতে এবার থেকে আর কোনও চাবির প্রয়োজন নেই! |
প্রথম পাতা / টেলিকম / ইডটকো থেকে বেশিরভাগ শেয়ার তুলে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রবি
ইডটকো  থেকে বেশিরভাগ শেয়ার তুলে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রবি

ইডটকো থেকে বেশিরভাগ শেয়ার তুলে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রবি

index copy

ইডটকো বাংলাদেশ থেকে বেশিরভাগ শেয়ার তুলে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রবি। মালয়েশিয়া-ভিত্তিক অঙ্গপ্রতিষ্ঠানটিতে রবির ৫১ শতাংশ শেয়ার রয়েছে। সম্প্রতি বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন রেগুলেটরি কমিশনে (বিটিআরসি) এক চিঠি মারফত এডটকো বাংলাদেশ থেকে আরও ৩১ শতাংশ শেয়ার বিক্রির কথা জানায় রবি।

শেয়ার হস্তান্তরের পর ইডটকো ৮০ শতাংশ স্টেক ধারণ করবে অন্যদিকে রবির ঝুলিতে থাকবে ২০ শতাংশ স্টেক। বর্তমানে ইডটকো গ্রুপের কাছে প্রতিষ্ঠানটির ৪৯ শতাংশ শেয়ার আছে। প্রতিষ্ঠানটি কোন লাইসেন্স ছাড়াই বিটিআরসি প্রদত্ত অনাপত্তিপত্র নিয়ে কার্যক্রম পরিচালনা করছে। রবি এবং ইডটকো দুটিই মালয়েশিয় প্রতিষ্ঠান আজিয়াটা বারহ্যাডের মালিকানায়।

এদিকে, টাওয়ার প্রতিষ্ঠান নির্দেশিকার খসড়া অনুযায়ী, মোবাইল ফোন প্রতিষ্ঠান কিংবা ওয়াইম্যাক্স ভিত্তিক প্রতিষ্ঠানের সাথে জড়িত কোন প্রতিষ্ঠানই এ ধরণের লাইসেন্সের জন্য আবেদন করতে পারবে না। টাওয়ার প্রতিষ্ঠান নির্দেশিকার খসড়া মেনে নিয়ে, এডটকো মূল প্রতিষ্ঠান থেকে বাকি ৫১ শতাংশ কিনে নেওয়ার জন্য এপ্রিল মাসে বিটিআরসি বরাবর আবেদন করে।

তবে বিটিআরসি কর্মকর্তারা জানান, টাওয়ার প্রতিষ্ঠান নির্দেশিকার খসড়া অনুযায়ী, ইডটকো’তে রবির ২০ শতাংশ শেয়ার থাকায় প্রতিষ্ঠানটি টাওয়ার লাইসেন্স পাওয়ায় অযোগ্য। এ সম্পর্কে বিটিআরসি’র এক জ্যৈষ্ঠ কর্মকর্তা বলেন, ‘টাওয়ার নির্দেশিকা অনুযায়ী টাওয়ার প্রতিষ্ঠানে কোন মোবাইল ফোন প্রতিষ্ঠানের শেয়ার থাকতে পারবে না। সুতরাং, টাওয়ার নির্দেশিকার খসড়া কোন পরিবর্তন ছাড়া প্রনয়ণ হলে ইডটকো’তে রবি’র শেয়ারগুলো প্রতিষ্ঠানটিকে টাওয়ার লাইসেন্স পেতে সমস্যায় ফেলে দিবে।’

রবি বর্তমানে বাংলাদেশের আরেক মোবাইল ফোন অপারেটর এয়ারটেলের সাথে একীভূত হওয়ার প্রক্রিয়ায় আছে। বিটিআরসি টাওয়ার ব্যবসায়ের নির্দেশিকার খসড়া চূড়ান্ত করেছে। নির্দেশিকাটি টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের সম্মতির অপেক্ষায় আছে। পরবর্তীতে দুটি স্বাধীন প্রতিষ্ঠানকে টাওয়ার ব্যবসায়ের লাইসেন্স প্রদানে নিলামে আয়োজন করা হবে। নির্দেশিকার খসড়া মোতাবেক, বিদেশী টাওয়ার ব্যবস্থাপনা প্রতিষ্ঠানগুলোর অবশ্যই স্থানীয় অংশীদার থাকতে হবে এবং তারা নিজেরা কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারবে না। ইডটকোর সাম্প্রতিক হিসাব অনুযায়ী, প্রতিষ্ঠানটি দেশের ৬টি মোবাইল ফোন প্রতিষ্ঠানের অন্তত ৯,৩০০ টাওয়ার পরিচালনা করছে।

সূত্র: নিউ এইজ

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top