শিরোনাম

মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - দেশের সবচেয়ে বড় গেমিং প্লাটফর্ম ‘মাইপ্লে’ চালু করলো রবি | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - রাজধানীতে টেকনোর আরও নতুন দুইটি ব্র্যান্ড শপের শুভ উদ্বোধন | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - বৃহস্পতিবার থেকে রাজধানীতে ল্যাপটপ মেলা | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - মোবাইল ইন্টারনেট গতিতে বাংলাদেশের অবস্থান ১২০তম | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - জরুরি সেবা ৯৯৯ এর উদ্বোধন করলেন জয় | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - নতুন অ্যাপ ‘ফাইলস গো’ চালু করেছে গুগল | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - বাজারে এলো শাওমির নতুন দুই ফোন | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - বিশ্ব বিখ্যাত পাঁচ রাঁধুনি রোবট | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - সনি’র দুর্দান্ত এক আপকামিং ফোনের তথ্য ফাঁস | সোমবার, ডিসেম্বর 11, 2017 - বিসিএস এর ২৬তম বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত |
প্রথম পাতা / টেলিকম / ইডটকো থেকে বেশিরভাগ শেয়ার তুলে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রবি
ইডটকো  থেকে বেশিরভাগ শেয়ার তুলে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রবি

ইডটকো থেকে বেশিরভাগ শেয়ার তুলে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রবি

index copy

ইডটকো বাংলাদেশ থেকে বেশিরভাগ শেয়ার তুলে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রবি। মালয়েশিয়া-ভিত্তিক অঙ্গপ্রতিষ্ঠানটিতে রবির ৫১ শতাংশ শেয়ার রয়েছে। সম্প্রতি বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন রেগুলেটরি কমিশনে (বিটিআরসি) এক চিঠি মারফত এডটকো বাংলাদেশ থেকে আরও ৩১ শতাংশ শেয়ার বিক্রির কথা জানায় রবি।

শেয়ার হস্তান্তরের পর ইডটকো ৮০ শতাংশ স্টেক ধারণ করবে অন্যদিকে রবির ঝুলিতে থাকবে ২০ শতাংশ স্টেক। বর্তমানে ইডটকো গ্রুপের কাছে প্রতিষ্ঠানটির ৪৯ শতাংশ শেয়ার আছে। প্রতিষ্ঠানটি কোন লাইসেন্স ছাড়াই বিটিআরসি প্রদত্ত অনাপত্তিপত্র নিয়ে কার্যক্রম পরিচালনা করছে। রবি এবং ইডটকো দুটিই মালয়েশিয় প্রতিষ্ঠান আজিয়াটা বারহ্যাডের মালিকানায়।

এদিকে, টাওয়ার প্রতিষ্ঠান নির্দেশিকার খসড়া অনুযায়ী, মোবাইল ফোন প্রতিষ্ঠান কিংবা ওয়াইম্যাক্স ভিত্তিক প্রতিষ্ঠানের সাথে জড়িত কোন প্রতিষ্ঠানই এ ধরণের লাইসেন্সের জন্য আবেদন করতে পারবে না। টাওয়ার প্রতিষ্ঠান নির্দেশিকার খসড়া মেনে নিয়ে, এডটকো মূল প্রতিষ্ঠান থেকে বাকি ৫১ শতাংশ কিনে নেওয়ার জন্য এপ্রিল মাসে বিটিআরসি বরাবর আবেদন করে।

তবে বিটিআরসি কর্মকর্তারা জানান, টাওয়ার প্রতিষ্ঠান নির্দেশিকার খসড়া অনুযায়ী, ইডটকো’তে রবির ২০ শতাংশ শেয়ার থাকায় প্রতিষ্ঠানটি টাওয়ার লাইসেন্স পাওয়ায় অযোগ্য। এ সম্পর্কে বিটিআরসি’র এক জ্যৈষ্ঠ কর্মকর্তা বলেন, ‘টাওয়ার নির্দেশিকা অনুযায়ী টাওয়ার প্রতিষ্ঠানে কোন মোবাইল ফোন প্রতিষ্ঠানের শেয়ার থাকতে পারবে না। সুতরাং, টাওয়ার নির্দেশিকার খসড়া কোন পরিবর্তন ছাড়া প্রনয়ণ হলে ইডটকো’তে রবি’র শেয়ারগুলো প্রতিষ্ঠানটিকে টাওয়ার লাইসেন্স পেতে সমস্যায় ফেলে দিবে।’

রবি বর্তমানে বাংলাদেশের আরেক মোবাইল ফোন অপারেটর এয়ারটেলের সাথে একীভূত হওয়ার প্রক্রিয়ায় আছে। বিটিআরসি টাওয়ার ব্যবসায়ের নির্দেশিকার খসড়া চূড়ান্ত করেছে। নির্দেশিকাটি টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের সম্মতির অপেক্ষায় আছে। পরবর্তীতে দুটি স্বাধীন প্রতিষ্ঠানকে টাওয়ার ব্যবসায়ের লাইসেন্স প্রদানে নিলামে আয়োজন করা হবে। নির্দেশিকার খসড়া মোতাবেক, বিদেশী টাওয়ার ব্যবস্থাপনা প্রতিষ্ঠানগুলোর অবশ্যই স্থানীয় অংশীদার থাকতে হবে এবং তারা নিজেরা কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারবে না। ইডটকোর সাম্প্রতিক হিসাব অনুযায়ী, প্রতিষ্ঠানটি দেশের ৬টি মোবাইল ফোন প্রতিষ্ঠানের অন্তত ৯,৩০০ টাওয়ার পরিচালনা করছে।

সূত্র: নিউ এইজ

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top