শিরোনাম

মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - দেশের সবচেয়ে বড় গেমিং প্লাটফর্ম ‘মাইপ্লে’ চালু করলো রবি | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - রাজধানীতে টেকনোর আরও নতুন দুইটি ব্র্যান্ড শপের শুভ উদ্বোধন | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - বৃহস্পতিবার থেকে রাজধানীতে ল্যাপটপ মেলা | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - মোবাইল ইন্টারনেট গতিতে বাংলাদেশের অবস্থান ১২০তম | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - জরুরি সেবা ৯৯৯ এর উদ্বোধন করলেন জয় | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - নতুন অ্যাপ ‘ফাইলস গো’ চালু করেছে গুগল | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - বাজারে এলো শাওমির নতুন দুই ফোন | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - বিশ্ব বিখ্যাত পাঁচ রাঁধুনি রোবট | মঙ্গলবার, ডিসেম্বর 12, 2017 - সনি’র দুর্দান্ত এক আপকামিং ফোনের তথ্য ফাঁস | সোমবার, ডিসেম্বর 11, 2017 - বিসিএস এর ২৬তম বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত |
প্রথম পাতা / প্রডাক্ট রিভিউ / এইচ পি এলিট এক্স৩ মানেই উইন্ডোজ ১০
এইচ পি এলিট এক্স৩ মানেই উইন্ডোজ ১০

এইচ পি এলিট এক্স৩ মানেই উইন্ডোজ ১০

hp-x3

বিশ্ব বিখ্যাত কম্পিউটার সামগ্রী নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হিউলেট প্যাকার্ড উইন্ডোজ ১০ অপারেটিং সিস্টেমচালিত স্মার্টফোন বাজারে এনেছে এইচ পি। এটি সাধারণ স্মার্টফোন নয়। পেশাদারদের জন্য দারুণ কাজের। এতে মাউস, কিবোর্ড সবই যোগ করা যাবে। এটা থাকা মানেই পকেটে একটি উইন্ডোজ ১০ কম্পিউটার থাকা। এখানে জেনে নিন এর সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য।

১. এইচপি এলিট এক্স৩ শেষ পর্যন্ত একটি স্মার্টফোন। ছয় ইঞ্চি অ্যামোলেড ডিসপ্লে, যার রেজ্যুলেশন হলো ২৫৬০ x ১৪৪০ পিক্সেল। এ ছাড়া এতে রয়েছে ১৬ মেগাপিক্সেল পেছনের কামেরা, ২.১৫ গিগাহার্জ কোয়াড কোর স্ন্যাপড্রাগন ৮২০ প্রসেসর, ৬৪ জিবি স্টোরেজ, ৪ জিবি র‌্যাম। মাইক্রোএসডি কার্ড স্লট ব্যবহার করে এতে ২ টেরাবাইট পর্যন্ত স্টোরেজ বাড়ানো সম্ভব। এ ছাড়া ইউএসবি টাইপ-সি কানেক্টর ব্যবহার করায় দ্রুতগতিতে তথ্য আদানপ্রদান করা যাবে। স্মার্টফোনটির ব্যাটারি হলো ৪১৫০ এমএএইচ। এ ছাড়া এতে থাকছে উইন্ডোজ ১০ মোবাইল অপারেটিং সিস্টেম।

২. স্মার্টফোনটি আসবে একটি বিশাল বাক্সে। দাম শুরু ৬৯৯ ডলার থেকে।

৩. বাক্সের মধ্যে রয়েছে অপশনাল ১২.৫ ইঞ্চি ল্যাপটপ মনিটর ও কিবোর্ড। এ দুটি ব্যবহার করা যাবে স্মার্টফোনটির হার্ডওয়্যারের সঙ্গে সংযুক্ত করে।

৪. ফোনটিতে রয়েছে অনেকগুলো পোর্ট। এ দিয়ে দিব্যি সব কাজ চলবে। আছে ইউএসবি ৩.০ পোর্ট। আছে দ্রুততম ইউএসবি-সি পোর্ট। আরো আছে ইথারনেট পোর্ট এবং একটি ডিসপ্লে পোর্ট।

৫. শুধু বড় ডিসপ্লে ও কিবোর্ড নয়, এতে বাড়তি মাউস ও অন্যান্য যন্ত্রাংশ সংযুক্ত করা যাবে। ফলে স্মার্টফোন হলেও বাস্তবে এ যন্ত্রটি একটি ল্যাপটপের শূন্যস্থানপূরণ করবে।

৬. মাইক্রোসফটের নতুন প্রজন্মের অপারেটিং সিস্টেম উইন্ডোজ ১০ এ স্মার্টফোন কাম ল্যাপটপটির কাজ করা সুবিধাজনক করে তুলেছে। এতে প্রয়োজনের সময় পকেটে করে যেমন ঘোরা যাবে তেমন প্রয়োজনের সময় টেবিলে নিয়ে কাজ করা যাবে স্মার্টফোনটি নিয়ে।

৭. উইন্ডোজ ১০ ইকোসিস্টেমে একটি ফিচার রয়েছে যার নাম ‘কন্টিনাম’। এটা উইন্ডোজ ১০ মোবাইল ওএস’কে কম্পিউটারে ওএস এর রূপ দেবে।

৮. কন্টিনাম মূলত পরিপূর্ণ উইন্ডোজ ১০ এর মতো। এটি মোবাইলের অপারেটিং সিস্টেমে পুরোপুরি কম্পিউটারের উইন্ডোজের মতো সব অ্যাপ দেখাবে। মাইক্রোসফট অফিস এবং এজসহ পরিপূর্ণ অ্যাপের দেখা মিলবে এতে।

৯. এলিট এক্স৩ আপনাকে এইচপি এরে ওয়ার্কস্পেস ভার্চুয়ালাইজেশন সার্ভিসে সাবস্ক্রাইবের সুযোগ দেবে। এতে করে অ্যাপের ফুল ভার্সন মিলবে।

১০. এমনকি এলিট এক্স৩’কে ল্যাপডকে যুক্ত করা যাবে। ল্যাপডকের মাধ্যমে স্মার্টফোনটির ডিসপ্লে সাড়ে ১২.৫ ইঞ্চি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে।

সূত্রঃ বিজনেস ইনসাইডার

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top