শিরোনাম

শনিবার, নভেম্বর 18, 2017 - স্বাস্থ্য সচেতনতা বৃদ্ধিতে একত্রে কাজ করবে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও এটুআই | শনিবার, নভেম্বর 18, 2017 - চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে রবি’র ক্যারিয়ার কার্নিভাল | শনিবার, নভেম্বর 18, 2017 - ‘শান্তি’র জন্য প্রযুক্তি পরিচয়ের প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত | শনিবার, নভেম্বর 18, 2017 - নতুন ফিচার নিয়ে ফুডপান্ডা | বৃহস্পতিবার, নভেম্বর 16, 2017 - কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তায় পরিচালিত হবে জীবন | বৃহস্পতিবার, নভেম্বর 16, 2017 - বিশবছর পূর্তি উদযাপন করলো এরিকসন বাংলাদেশ | বৃহস্পতিবার, নভেম্বর 16, 2017 - ফেসবুক হ্যাক হওয়া থেকে বাঁচতে পারেন যে উপায়ে | বৃহস্পতিবার, নভেম্বর 16, 2017 - স্মার্টফোনে আসছে আরও শক্তিশালী জুম ক্যামেরা | বৃহস্পতিবার, নভেম্বর 16, 2017 - বাজারে এল স্যামসাং এর নতুন ফোন | বৃহস্পতিবার, নভেম্বর 16, 2017 - প্রথম“সিরামিক এক্সপো বাংলাদেশ– ২০১৭” শুরু হচ্ছে ৩০ নভেম্বর |
প্রথম পাতা / সাম্প্রতিক খবর / ওটিসি ড্রাগ বিষয়ে সচেতনতা জরুরি
ওটিসি ড্রাগ বিষয়ে সচেতনতা জরুরি

ওটিসি ড্রাগ বিষয়ে সচেতনতা জরুরি

medicineডিরেক্টরেট জেনারেল অব ড্রাগ এডমিনিস্ট্রেশন (ডিজিডিএ) ‘বিশ্বব্যাপী ওটিসি ড্রাগ নীতিমালা পরিস্থিতি: বাংলাদেশের করণীয়’ শীর্ষক এক আলোচনার আয়োজন করে। মহাখালীতে অবস্থিত ঔষধ ভবনের ডিজিডিএ সম্মেলন কক্ষে এ আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনার মূল বিষয় ছিল বাংলাদেশে ‘ওভার দ্যা কাউন্টার’ ড্রাগের বর্তমান পরিস্থিতি ও সুবিধাসমূহ। আলোচনা অনুষ্ঠানে বক্তারা ‘ওটিসি’ ড্রাগ বিষয়ে সচেতনতা তৈরির প্রয়োজপনীয়তা তুলে ধরেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মেডিক্যাল রিসার্চ কাউন্সিলের চেয়ারম্যান এবং প্রধানমন্ত্রীর স্বাস্থ্য, পরিবার ও সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সাবেক উপদেষ্টা প্রফেসর (ডঃ) সৈয়দ মোদাসসের আলী। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ডিরেক্টরেট জেনারেল অব ড্রাগ এডমিনিস্ট্রেশন (ডিজিডিএ)- এর মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ডিজিডিএ-এর এসিস্ট্যান্ট ডিরেক্টর মোঃ সালাউদ্দিন, ডিরেক্টর মোঃ রুহুল আমিন, গ্লোব্যাল রেগুলেটরি ইনটেলিজেন্স এন্ড পলিসি (জিএসকে- আমেরিকা, ভারত, আফ্রিকা, মধ্যপ্রাচ্য)- এর ম্যানেজার বেঞ্জামিন এ চ্যাকো সহ আরও অনেকে।

অনুষ্ঠানে প্রফেসর (ডঃ) সৈয়দ মোদাসসের আলী বলেন, “আমাদের দেশ বর্তমানে জনস্বাস্থ্য বিষয়ে অনেক এগিয়ে রয়েছে এবং আমি মনে করি, এক্ষেত্রে ৭০% অবদানই গণমাধ্যম কর্মীদের। যদিও আমাদের দেশের ঔষধ নীতিমালা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নীতিমালা থেকেও শক্তিশালী, এরপরও বর্তমানে আমাদের দেশের প্রায় সব ঔষধই ‘ওভার দ্যা কাউন্টার’ ড্রাগে পরিণত হয়েছে। এ অবস্থা থেকে রাতারাতি উত্তরণ সম্ভব নয়। এর জন্য প্রয়োজন দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা। এই সমস্যা দূর করতে পারে ঔষধ গ্রাহকদের সাথে চিকিৎসকদের যথাযথ যোগাযোগ। একমাত্র সচেতনতাই ক্রেতাদের সুপারিশকৃত ঔষধ আর ওটিসি ড্রাগের মধ্যে পার্থক্য বুঝতে সাহায্য করবে। আর এ কাজে ড্রাগ কেমিস্ট এসোসিয়েশন থেকে শুরু করে নীতি নির্ধারক সহ সমস্ত ঔষধ শিল্পের সকলের অংশগ্রহণ জরুরি। কেননা এরা একে অন্যের পরিপূরক হিসেবে কাজ করে। তাই সবাইকে সাথে না পেলে সফলতা অর্জন করা সম্ভব নয়।”

তিনি তার বক্তব্যে ডিজিডিএ-কে বিশ্বমানের ওটিসি ড্রাগ নীতিমালা প্রণয়নে একটি কমিটি গঠন এবং ওটিসি ড্রাগের গ্রাহকদের সাথে সরাসরি যোগাযোগ করার পাশাপাশি ওটিসি ড্রাগের তালিকা বাড়ানোর আহ্বান জানান।

মেজর জেনারেল মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, “সকলের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণের ফলে আজকের এই আয়োজন সফল করা সম্ভব হয়েছে। বর্তমানে আমাদের দেশে প্রায় ২০,০০০ লাইসেন্সবিহীন ফার্মেসী চালু আছে। আমরা এসব ফার্মেসী বন্ধের উদ্যোগ নিয়েছি। এরই মধ্যে ৪০টি ফার্মেসীর বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। আমরা ধীরে ধীরে সফলতার দিকে এগিয়ে যাচ্ছি। এখন আমরা বিশেষ নজর দিয়েছি ‘ওভার দ্যা কাউন্টার’ ড্রাগ বিষয়ে। ‘ওভার দ্যা কাউন্টার’ ড্রাগের বিষয়ে আমার পরামর্শ হলো গণমাধ্যমে এ বিষয়ে সচেতনতা তৈরি এবং পাশাপাশি গণমাধ্যমে ওটিসি ড্রাগের বিজ্ঞাপণ প্রচারের সুযোগ সৃষ্টি করা। এক্ষেত্রে আরও একটি কাজ করা যেতে পারে, তা হলো ওটিসি ড্রাগের বিশেষভাবে মোড়কীকরণ, যেমন নির্দেশনাগুলো বিশেষ রঙে চিহ্নিত করা। এই উদ্যোগ সফল করতে আমরা গণমাধ্যম সহ সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা কামনা করছি। ”

গ্লোব্যাল রেগুলেটরি ইনটেলিজেন্স এন্ড পলিসি (জিএসকে- আমেরিকা, ভারত, আফ্রিকা, মধ্যপ্রাচ্য)- এর ম্যানেজার বেঞ্জামিন এ চ্যাকো বলেন, “ অন্যান্য ড্রাগ থেকে ওটিসি ড্রাগগুলো একেবারে ভিন্ন। স্বল্প মেয়াদী ঔষধগুলো সম্পর্কে আমাদের যথাযথ মাত্রায় স্বাস্থ্যসেবা বিষয়ক শিক্ষা থাকা প্রয়োজনে, তাহলে ক্রেতারা ওটিসি ড্রাগের প্রভাব সম্পর্কে ভালোভাবে জানতে পারবে। বাংলাদেশে শক্তিশালী ও সুচিন্তিত নীতিমালা কাঠামো নির্ধারণ করতে বিশ্ব বাজারের অন্যান্য ড্রাগ সম্পর্কিত তথ্য আমাদের প্রয়োজন।”

 

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top