শিরোনাম

বুধবার, মে 24, 2017 - ৩৩১০ সহ নকিয়ার তিনটি স্মার্টফোন জুন থেকে দেশের বাজারে পাওয়া যাবে | বুধবার, মে 24, 2017 - ফেইসবুকের দেখা, না দেখা | বুধবার, মে 24, 2017 - চলতি বসরে সবচেয়ে বেশি বিক্রি হওয়া স্মার্টফোনসমূহ | বুধবার, মে 24, 2017 - জাতীয় ইন্টারনেট সপ্তাহ শুরু | বুধবার, মে 24, 2017 - ডাক্তারদের জন্য ই-প্রেসক্রিপশান সফটওয়্যার | মঙ্গলবার, মে 23, 2017 - বেসিস নির্বাচন :লটারিতে বাদ পড়েছেন মোস্তাফা জব্বার, রাসেল ও ফারহানা | মঙ্গলবার, মে 23, 2017 - গাজীপুরে স্যামসাং এর ৫০তম ব্র্যান্ড শপ উদ্বোধন | মঙ্গলবার, মে 23, 2017 - ঢাকা বিভাগে পুরোদমে চলছে রবি-এয়ারটেল নেটওয়ার্কের সমন্বয় | মঙ্গলবার, মে 23, 2017 - ঈদের আনন্দ দ্বিগুণ করতে হুয়াওয়ের আকর্ষণীয় অফার | মঙ্গলবার, মে 23, 2017 - আইসিটি স্কলার ফেলোশিপ |
প্রথম পাতা / ক্যারিয়ার / ক্যান্ডি: গ্র্যাজুয়েশনের পর জিপি অ্যাকসেলারেটর টিম
ক্যান্ডি: গ্র্যাজুয়েশনের পর জিপি অ্যাকসেলারেটর টিম

ক্যান্ডি: গ্র্যাজুয়েশনের পর জিপি অ্যাকসেলারেটর টিম

1465897438
ব্যবহারকারীদের লক স্ক্রিনে কন্টেন্ট নিয়ে আসার মত বুদ্ধিমান একটি অ্যাপের মত কাজ করে যাচ্ছে ক্যান্ডি। কম সময়ের মধ্যে ক্যান্ডি অ্যাপটি যে কোন ব্যবসায়িক কন্টেন্টকে সবার কাছে পরিচিত করে তোলার জন্য কাজ করে যাচ্ছে। সম্প্রতি জিপি অ্যাকসেলারেটর প্রোগ্রাম থেকে গ্র্যাজুয়েশন সম্পন্ন করেছে সেরা পাঁচের একটি দল ক্যান্ডি।
অক্টোবর ২০১৫ থেকে বাংলাদেশের সেরা টেকনোলজি স্টার্ট-আপদের অ্যাকসেলারেট করার জন্য গ্রামীণফোনের সাথে এসডি এশিয়া যুক্ত হয়ে ‘জিপি অ্যাকসেলারেটর’ প্রোগ্রামের যাত্রা শুরু করে। ‘জিপি অ্যাকসেলারেটর’ প্রোগ্রামের প্রথম ব্যাচের জন্য কয়েকশ’ স্টার্ট-আপ অ্যাপ্লিকেশন থেকে ইন্টার্ভিউ, ডেমো প্রেজেন্টেশন এবং বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বাছাই শেষে ‘জিপি অ্যাকসেলারেটর’ প্রোগ্রামের জন্য সেরা পাঁচটি স্টার্ট-আপকে বাছাই করা হয়েছে।ক্যান্ডিও ছিল সেই সেরাদের একটি দল।
ক্যান্ডির সিইও সিদ্দিক আবু বক্করের সাথে কথা বলে জিপি অ্যাকসেলারেটর থেকে স্টার্টআপদের শেখার মত অনেক বিষয় নিয়েই জানা গেল। সিদ্দিক জানালেন অ্যাকসেলারেটর প্রোগ্রাম কিভাবে একটি স্টার্টআপকে সাহায্য করে,
অ্যাকসেলারেটরে যোগদান করার পর স্টার্টআপের এগিয়ে চলা:
জিপি অ্যাকসেলারেটর প্রোগ্রাম থেকে ক্যান্ডির সবচেয়ে বেশী কাজে এসেছে সবার কাছে পরিচিত হওয়ার সুযোগকে। এতে করে তাদের মার্কেটিং এবং অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহারকারীর সংখ্যা অনেক বেড়ে গেছে। যেখানে জিপি অ্যাকসেলারেটর যোগদানের আগে তাদের সক্রিয় ব্যবহারকারী ছিল ১০ জন, এখন তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫০০ ব্যবহারকারী।প্রতিদিন এখন, ১০০-র বেশী ব্র্যান্ডের ৫০০টিরও বেশী বিজ্ঞাপন প্রকাশিত হয় এই অ্যাপে।ক্যান্ডি অ্যাপে এখন গড়ে ২০ মিনিটেরও বেশী সময় ধরে ব্যবহারকারীরা ব্যয় করে।
জিপি অ্যাকসেলারেটর প্রোগ্রাম থেকে শিক্ষা:
এক্সপার্টদের মেন্টরশিপ থেকেই সবচেয়ে বেশী শিখেছেন বলেই মনে করছে সিদ্দিক। শুধু তাই নয়, অনেক বিনিয়োগকারীদের সাথেও দেখা করার সুযোগ পেয়েছে ক্যান্ডি। ৪-মাসের এই বুটক্যাম্পকে সিদ্দিক স্টার্টআপদের অনেক কিছুই শেখার মত একটি প্রোগ্রাম বলেই মনে করছেন।
ডেমো ডে থেকে অভিজ্ঞতা:
৪ মাসের জিপি অ্যাকসেলারেটর প্রোগ্রাম শেষ করে ডেমো ডেতে ক্যান্ডি ১০০-র বেশী সংখ্যক বিনিয়োগকারী, প্রফেশনাল এবং উদ্যোক্তাদের সামনে তাদের ব্যবসা তুলে ধরার সুযোগ পেয়েছে। এমনকি অনেক বিনিয়োগকারীদের নজরও কেড়েছে সম্ভাবনাময় এই স্টার্টআপটি। সিদ্দিক মনে করেন জিপি অ্যাকসেলারেটরে যোগদানের পর ১০% ব্যবসার অংশ দিয়ে দিলেও তার চেয়ে অনেক বেশী কিছুই অর্জন করতে পেরেছে তারা স্টার্টআপটি।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top