শিরোনাম

বৃহস্পতিবার, জুন 22, 2017 - পাকিস্তানের টাওয়ার কোম্পানি অধিগ্রহণ করছে ইডটকো | বৃহস্পতিবার, জুন 22, 2017 - নোকিয়া ৯ স্মার্টফোনে ৬জিবি এবং ৮জিবি র‌্যাম | বৃহস্পতিবার, জুন 22, 2017 - চীন বানাল বিশ্বের সবচেয়ে দ্রুতগতির সুপার কম্পিউটার | বৃহস্পতিবার, জুন 22, 2017 - পদত্যাগ করলেন উবার প্রধান | বৃহস্পতিবার, জুন 22, 2017 - আসছে উড়ন্ত গাড়ি | বৃহস্পতিবার, জুন 22, 2017 - রাজধানীতে ভিক্ষাতে প্রযুক্তির ছোয়া | বৃহস্পতিবার, জুন 22, 2017 - স্মার্টফোন থেকে মুছে যাওয়া ছবি ফিরে পেতে করনীয় | বুধবার, জুন 21, 2017 - সাকিব আল হাসান ও হুয়াওয়ে ভক্তদের চীন সফর | বুধবার, জুন 21, 2017 - নির্ভরযোগ্য ইন্টারনেটের উন্নততর মানের সূচনা | বুধবার, জুন 21, 2017 - জিপিহাউজে টেলিনর ইয়ুথ ফোরাম নিয়ে রোড শো অনুষ্ঠিত |
প্রথম পাতা / ইন্টারভিউ / গাড়ির নিরাপত্তা ও সর্বশেষ অবস্থান জানতে টেকনোলজির ব্যবহার
গাড়ির নিরাপত্তা ও সর্বশেষ অবস্থান জানতে টেকনোলজির ব্যবহার

গাড়ির নিরাপত্তা ও সর্বশেষ অবস্থান জানতে টেকনোলজির ব্যবহার

securityগাড়ি চুরির কথা অনেকেই শুনেছেন আবার অনেকেই এর কবলেও পরেছেন। গাড়ি চুরি ঠেকাতে ও এর সর্বশেষ অবস্থান জানাতে কয়েকটি প্রতিষ্ঠানই অনেকদিন ধরে কাজ করছে। যতগুলো প্রতিষ্ঠান এবিষয় নিয়ে কাজ করছে গ্রামীনফোন, মনিকো টেকনোলজি ও নিটল মটরস এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য । সম্প্রতি এবিষয়ে কথা হয় মনিকো টেকনোলজিস-এর পরিচালক এবং সিওও এম সাখাওয়াত সোবহান গোর্কির সাথে।

২০০৯ সাল থেকে মনিকো টেকনোলজি ফাইন্ডার জিপিএস প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করছে। ইতোমধ্যে তারা বিটিআরসি থেকেও অনুমোদন পেয়েছে। নিজস্ব প্রযুক্তি, কলসেন্টার ও মোবাইল অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যদিয়ে তারা এই সেবাটি দিয়ে থাকেন। এ বিষয়ে এম সাখাওয়াত সোবহান গোর্কি বলেন,‘ব্যবহারকারীদের প্রয়োজনীয় বাহন বা তার গাড়িটি খুঁজে পেতে সাহায্য করবে ফাইন্ডার জিপিএস ট্র্যাকিং অ্যাপ। এটি একটি লোকেশন থেকে জিপিএসের মাধ্যেমে যে কোনো যানবাহন ট্র্যাক করতে পারে।’ তিনি আরও বলেন ‘ এই ডিভাইস আপনারা গাড়ি, মোটর সাইকেল, মাইক্রোবাস, বাস, ট্রাক এমনকি সিএনজিতেও ব্যবহার করতে পারবেন। ডিভাইসের মাধ্যমে আপনি কম্পিউটার বা মোবাইল ফোন সেট দিয়ে দেখতে পারবেন গাড়ির অবস্থান, গতি, সারাদিনের গতিপথ। এমনকি নিজেই বাসা থেকে বন্ধ করে দিতে পারবেন গাড়ির ইঞ্জিন। এ ছাড়াও অ্যাপটির মাধ্যমে ট্যাক্সি, সিএনজি ভাড়া করা যাবে। এ ছাড়া কোন রাস্তায় কেমন যানজট রয়েছে তাও দেখা যাবে। অ্যাপটির মাধ্যমে আরও জানা যাবে- ট্র্যাকিংয়ের মাধ্যমে গাড়ির ঠিকানা, গতি ও দিক প্রদর্শন। এ ছাড়া জানা যাবে চুরি যাওয়া থেকে রক্ষা করতে দূরবর্তী নিরাপত্তা নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা এবং ইঞ্জিন বন্ধ করা,রিয়েল টাইম ট্র্যাকিং, চলাচলের গতিসীমা, পূর্ব নির্ধারিত অবস্থানে পৌঁছানো, অননুমোদিত রুট ইত্যাদি সম্পর্কেও গ্রাহক নির্ভুল তথ্য পাবেন।’

অনেক গাড়ির মালিকরা দুঃচিন্তায় থাকেন এই ভেবে যে, তার গাড়ির ড্রাইভার গাড়িটি নিয়ে এখন কোন অবস্থানে আছে ? কি করছে ? প্রাইভেট কারের মালিকদের এই রকম দুঃচিন্তা দূর করতেও মনিকো টেকনোলজি কাজ কারছে। এই প্রসঙ্গে সাখাওয়াত সোবহান বলেন,‘ অনেক ড্রাইভাররাই তার মালিক বলে , স্যার গ্যাস/ তেল নিতে আমাকে অনেকক্ষণ লাইনে থাকতে হয়। মালিকরাও অনেক সময় বাধ্য হয়ে বিশ্বাস করেন। কিন্ত এর বাস্তব চিত্র অন্যরকমও হয়। তেল বা গ্যাস নেওয়ার নাম করে ড্রাইভাররা অনেক সময় লোকাল পরিবহনের কাজ করে। ছোট ছোট ট্রিপ দেয় ড্রাইভাররা। এই সমস্যা সমাধানের জন্যও আমাদের ব্যবস্থা রয়েছে। গাড়ির মালিক চাইলেই তার গাড়ির সর্বশেষ অবস্থান জানতে পারবে তার হাতের মোবাইল ফোন বা স্মার্ট ডিভাইসের মাধ্যমে।’
মনিকো টেকনোলজি ৩ ধরনের ডিভাইজ সরবরাহ ও প্রতিস্থাপণ করে থাকে। এ ডিভাইসগুলো হলো- বেসিক ট্র্যাকিং, ভয়েসসহ ট্র্যাকিং ও ওডিবি ডিভাইস।
যে গাড়িটিতে এই ডিভাইস লাগানো রয়েছে তা অকেজো করতে চাইলে যে সময়ের প্রয়োজন তা নিয়ে সাখাওয়াত সোবহান বলেন, ‘ যখন গাড়িটি চুরি হয় তখন চোর গাড়িটিকে একটি নিরাপদ যায়গায় নিয়ে যায়। এই নিরাপদ যায়গা হিসেবে তারা নির্জন বাড়ি বা স্থানকে বেছে নেয়। তাদের নির্ধারিত স্থানে যেতে যে সময় লাগে তারমধ্যেই আমারা গাড়িটি খুঁজে পেতে সক্ষম। তবে গাড়িটি চুরি হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে আমাদের কে বিষয়টি হেল্পলাইনে কল করে জানাতে হবে।’ তিনি আরও বলেন, এ পর্যন্ত আমাদের অনেকগুলো সফল উদ্ধার সম্পন্ন হয়েছে। যেগুলো সফল তার মধ্যে সিএনজির সংখ্যাই বেশি।
এছাড়াও প্রতিষ্ঠানটি গ্রাহক সেবার অংশ হিসেবে কয়েকটি কাজ করে থাকে। এই প্রসঙ্গে সাখাওয়াত সোবহান বলেন,‘ গ্রাহকদের নিয়েই আমাদের যত চিন্তা, আমাদের ব্যবসা ও সেবা তাদেরকে ঘিরেই। আমাদের একটি হেল্পলাইন তাদের জন্য ২৪ ঘন্টা খোলা থাকে। হেল্প লাইন নম্বরটি হলো- ২৪৭ অর্থৎ ২৪ ঘন্টা সপ্তাহে সাতদিনই খোলা।’ তিনি আরও বলেন,‘গ্রাহকদের আমরা ডাটা ব্যাকআপের সুবিধাও দিয়ে থাকি। এজন্য আমরা গ্রাহকের কাছ থেকে প্রতিমাসে সার্ভিস চার্জ হিসেবে নিচ্ছি ৫০০ টাকা। আর প্রতি ৩ মাসের ডাটা ব্যাকআপের জন্য নিচ্ছি প্রতিমাসে ৪০০ টাকা করে।’
বাংলাদেশের সর্বত্রই এই সেবা দেওয়া হচ্ছে বলেও জানান তিনি। ঢাকা, চট্রগ্রাম, বগুড়া, সিলেট, যশোরসাহ সারা দেশে তাদের ডিলার রয়েছে কয়েক’শ। দেশব্যাপী মনিকো টেকনোলজির ডিলার আরও বাড়ানোর পরিকল্পনাও রয়েছে। কয়েকদিনের মধ্যেই ডিলার নিয়োগের বিজ্ঞপ্তির পরিকল্পনা করছে প্রতিষ্ঠানটি।
মনিকো টেকনোলজি যে ডিভাইসগুলো সরবরাহ করে থাকে তার মূল্য সম্পর্কে সাখাওয়াত সোবহান জানান, প্রাইভেট কারে স্থাপনের জন্য ৭৫০০ টাকা, বাইকে স্থাপনের জন্য ৬৫০০ টাকা ভয়েস ট্র্যাকিং সুবিধাসহ ডিভাইসটির মূল্য ৯০০০ টাকা মূল্য নির্ধারন করা হয়েছে ।

মনিকোর তৈরি অ্যাপটি গুগল প্লে স্টোরে পাওয়া যায়। এই ঠিকানা থেকেও ডাউনলোড করে নিতে পারবেন অ্যাপটি goo.gl/uLpAvt 
উল্লেখ্য, ২০১৪ সালে রিকানেক্ট প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশে থেকে একমাত্র এই অ্যাপটি ‘রিকানেক্ট চ্যালেঞ্জ’-এ অংশ নিতে নির্বাচিত হয়েছিলো। এ প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশ ছাড়াও কাজাখস্তান, ভারত, পাকিস্তান, নেপাল এবং শ্রীলঙ্কাসহ দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়ার ১২ টি দেশের ২৩০ টি প্রতিযোগী প্রতিষ্ঠান অংশ নেয়। তাদের মধ্য থেকে ১৩ টি প্রতিষ্ঠানের অ্যাপসকে চূড়ান্ত প্রতিযোগিতার জন্য র্নিবাচিত করা হয়।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top