শিরোনাম

বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 18, 2018 - ওয়ান প্লাসের নতুন পাওয়ার ব্যাংক | বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 18, 2018 - স্প্যাম মেসেজ ঠেকাতে হোয়াটসঅ্যাপের নতুন ফিচার | বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 18, 2018 - যাত্রা শুরু করলো ওয়ালটনের কম্পিউটার কারখানা | বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 18, 2018 - নতুন স্মার্টফোন আনল হুয়াওয়ে অনার | বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী 18, 2018 - স্বল্প মূল্যের গ্যালাক্সি সিরিজের ফোন ‘অন৭ প্রাইম’ | বুধবার, জানুয়ারী 17, 2018 - একত্রে কাজ করবে এটুআই এবং একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প | বুধবার, জানুয়ারী 17, 2018 - ল্যাপটপের সঙ্গে রাউটার ফ্রি! | বুধবার, জানুয়ারী 17, 2018 - ‘অপো এশিয়ায় সর্বাধিক বিক্রীত স্মার্টফোন’ | বুধবার, জানুয়ারী 17, 2018 - চীনে চালু হচ্ছে গুগলের এআই ল্যাব | বুধবার, জানুয়ারী 17, 2018 - বৈদ্যুতিক গাড়িতে ১১০০ কোটি ডলার বিনিয়োগে ফোর্ডের আগ্রহ প্রকাশ |
প্রথম পাতা / সাম্প্রতিক খবর / ফিচার পোস্ট / টেলিকম গ্রাহকদের অভিযোগ নিয়ে বিটিআরসির কোন ভ্রুক্ষেপ নেই
টেলিকম গ্রাহকদের অভিযোগ নিয়ে বিটিআরসির কোন ভ্রুক্ষেপ নেই

টেলিকম গ্রাহকদের অভিযোগ নিয়ে বিটিআরসির কোন ভ্রুক্ষেপ নেই

গত দেড় দশকে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে পৌঁছেছে টেলিযোগাযোগ সেবা। বর্তমানে এ সেবার সংযোগ সংখ্যা প্রায় ১২ কোটি। বিপুল এ গ্রাহকের রয়েছে সেবাসংশ্লিষ্ট নানা অভিযোগ। তবে এসব অভিযোগ গ্রহণের ক্ষেত্রে কার্যকর কোনো উদ্যোগ নেই বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি)। সেবার মান নিশ্চিতে প্রায় দুই বছর আগে এ-সংক্রান্ত নীতিমালার একটি খসড়া তৈরি হলেও আজও তা চূড়ান্ত করতে পারেনি নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

টেলিযোগাযোগ সেবাসংশ্লিষ্ট বিষয়ে গ্রাহকের অভিযোগ গ্রহণ ও তার সমাধানে নিজেদের ওয়েবসাইটে একটি ই-মেইল ঠিকানা দিয়েছে বিটিআরসি। এর বাইরে সংস্থাটির কার্যালয়ে লিখিতভাবেও অভিযোগ জানানোর ব্যবস্থা রয়েছে। যদিও খাতসংশ্লিষ্টরা বলছেন, নিয়ন্ত্রক সংস্থার কাছে এ প্রক্রিয়ায় অভিযোগ জানাতে পারছেন সীমিত সংখ্যক গ্রাহক। কারণ প্রত্যন্ত অঞ্চলের গ্রাহক এখনো ই-মেইল ব্যবহারে অভ্যস্ত নন। বিটিআরসির কার্যালয়ে লিখিতভাবে অভিযোগ জানানোর সুযোগও নেই অনেকের। এছাড়া সংস্থাটির ওয়েবসাইটের বাইরে এ বিষয়ে কোনো ধরনের প্রচারণা নেই। ফলে অভিযোগ করার এ প্রক্রিয়া সম্পর্কেই জানেন না সিংহভাগ গ্রাহক।

btrc-grahok

দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে চালু করা ডিজিটাল সেন্টারের মাধ্যমে সরকারি-বেসরকারি ৬০ ধরনের সেবা দেয়া হচ্ছে। সাড়ে চার হাজারের বেশি ডিজিটাল সেন্টারের মাধ্যমে এ সেবা পাচ্ছে এসব অঞ্চলের মানুষ। টেলিযোগাযোগ গ্রাহকের সেবাসংশ্লিষ্ট অভিযোগ গ্রহণ ও তা সমাধানের জন্য ডিজিটাল সেন্টারগুলোকে ব্যবহার করা যেতে পারে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। গ্রাহক অভিযোগ নিষ্পত্তি ও অযাচিত বাণিজ্যিক টেলিযোগাযোগ বন্ধের নির্দেশনার বিধান রেখে বিটিআরসি জাতীয় টেলিযোগাযোগ গ্রাহক স্বার্থ সুরক্ষা নীতিমালার খসড়া প্রকাশ করে গত বছরের ৩০ জানুয়ারি। একই বছরের মার্চে খাতসংশ্লিষ্টদের মতামত নেয়া হয়। এর পর তা ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ে অনুমোদনের জন্য পাঠানোর কথা থাকলেও দুই বছরেও খসড়াটি চূড়ান্ত করা যায়নি।

গ্রাহক স্বার্থ রক্ষায় কনজিউমার কমপ্লেইন রিড্রেসাল ইউনিট (সিসিআরইউ) নামে একটি বিশেষ বিভাগ গঠনের কথা উল্লেখ করা হয়েছে খসড়া নীতিমালায়। এ শাখা গ্রাহকের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে অপারেটরদের নেয়া ব্যবস্থা যাচাই-বাছাই করবে। বিটিআরসির বিভিন্ন বিভাগের সাতজন কর্মকর্তার সমন্বয়ে গঠন করা হবে সিসিআরইউ। একই সঙ্গে প্রত্যেক অপারেটরকে গ্রাহক স্বার্থ রক্ষায় নিজস্ব ব্যবস্থা গড়ে তুলতে হবে। চূড়ান্ত নীতিমালা প্রকাশের ৯০ দিনের মধ্যে এ ইউনিট গঠন করার কথা।
বিটিআরসির সচিব সরওয়ার আলম এ প্রসঙ্গে  বলেন, গ্রাহক সুরক্ষা নীতিমালা তৈরির কাজ করছে বিটিআরসি। এটি চূড়ান্ত হলে সেবা নিয়ে গ্রাহকদের ভোগান্তি কমবে। বর্তমানে গ্রাহকের বিভিন্ন অভিযোগ গ্রহণ ও তা সমাধানে বিটিআরসির সংশ্লিষ্ট বিভাগ দায়িত্ব পালন করছে। এ কার্যক্রম আরো সম্প্রসারণের পরিকল্পনা রয়েছে কমিশনের।

খসড়া নীতিমালায় বলা হয়েছে, প্রত্যেক গ্রাহককে বিলের বিস্তারিত তথ্য জানাবে অপারেটর। গ্রাহক সেবা কেন্দ্রে মুদ্রিত অবস্থায় অথবা ওয়েবসাইটে ট্যারিফ-সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য থাকতে হবে। এছাড়া অপারেটরদের ওয়েবসাইটে সংশ্লিষ্ট গ্রাহকের ন্যূনতম ছয় মাসের বিলের বিস্তারিত তথ্য পিডিএফ আকারে পাওয়ার সুযোগ রাখতে হবে। এ সেবা দিতে গ্রাহকদের কাছ থেকে কোনো ধরনের মূল্য নেয়া যাবে না। এছাড়া টেলিমার্কেটিং নামে অযাচিত বাণিজ্যিক টেলিযোগাযোগ বন্ধে নীতিমালায় বেশকিছু পদক্ষেপের কথা বলা হয়েছে। এসএমএসের ক্ষেত্রে দৈনিক, পাক্ষিক ও মাসিক সীমা নির্ধারণ করার প্রস্তাব করা হয়েছে এতে। এছাড়া গ্রাহকের তথ্য বাণিজ্যিক উদ্দেশ্যে তৃতীয় কোনো পক্ষের কাছে হস্তান্তর করতে পারবে না অপারেটররা। উল্লেখ রয়েছে পারিবারিক সুরক্ষার বিষয়টিও।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top