শিরোনাম

মঙ্গলবার, জানুয়ারী 17, 2017 - ১৯ তারিখ আসছে নোকিয়া ৬ | মঙ্গলবার, জানুয়ারী 17, 2017 - বিক্রয় ডটকমে নারী কর্মীর অনুপাত ৩৬ শতাংশ | মঙ্গলবার, জানুয়ারী 17, 2017 - চিকিত্সকদের মাঝে ই-কিউর প্রেসক্রিপশান সফটওয়্যার বিতরণ | মঙ্গলবার, জানুয়ারী 17, 2017 - স্যামসাং প্রধানকে গ্রেপ্তারের আবেদন | সোমবার, জানুয়ারী 16, 2017 - নতুন নম্বর সিরিজ ০১৩ পাচ্ছে না জিপি | সোমবার, জানুয়ারী 16, 2017 - সিওরক্যাশের মাধ্যমে টাকা লেনদেন করতে পারবে পেইজা গ্রাহকেরা | সোমবার, জানুয়ারী 16, 2017 - সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ফ্রি ওয়াই-ফাই দেওয়া হবে : পলক | সোমবার, জানুয়ারী 16, 2017 - ডিজিটাল শিক্ষা বিস্তারে কাজ করবে টেন মিনিট স্কুল | সোমবার, জানুয়ারী 16, 2017 - ডিজিটাল এন্টারপ্রেনারশিপ ইকোসিস্টেম সম্পর্কিত কর্মশালা অনুষ্ঠিত | বুধবার, জানুয়ারী 11, 2017 - আফতাব-উল-ইসলাম বাংলাদেশ ব্যাংকের নতুন পরিচালক |
প্রথম পাতা / সাম্প্রতিক খবর / টেলিযোগাযোগ সেবা নিশ্চিতে ২৮৭২ শর্টকোড ও কলসেন্টার চালু
টেলিযোগাযোগ সেবা নিশ্চিতে ২৮৭২ শর্টকোড ও কলসেন্টার চালু

টেলিযোগাযোগ সেবা নিশ্চিতে ২৮৭২ শর্টকোড ও কলসেন্টার চালু

1464186010দেশের মোবাইল ফোন, ইন্টারনেটসহ টেলিযোগাযোগ সুবিধা ব্যবহারকারী গ্রাহকদের অভিযোগ গ্রহণ ও নিষ্পত্তির লক্ষ্যে একটি শর্টকোড চালু করেছে বিটিআরসি। গতকাল ২য় স্তরের অভিযোগ ব্যবস্থাপনা পদ্ধতি হিসেবে চার ডিজিটের ‘২৮৭২’ শর্টকোডটি কলসেন্টারের মাধ্যমে চালু করা হলো। সকল মোবাইল নম্বর থেকে গ্রাহকগণ উল্লেখিত শর্টকোডে অভিযোগ প্রদান এবং পরামর্শ গ্রহণ করতে পারবেন। শীঘ্রই সকল পিএসটিএন অপারেটরের নম্বর থেকেও গ্রাহকগণ তাদের অভিযোগ প্রদান করতে পারবে। এতে ফোন করতে গ্রাহককে নূন্যতম ২৫ পয়সা মিনিট হারে কলচার্জ ব্যয় হবে। গত বছরের ১৬ ডিসেম্বর হতে বিটিআরসি সারাদেশে সকল মোবাইল অপারেটরের নতুন সংযোগ ক্রয়ের ক্ষেত্রে এবং পুনর্নিবন্ধনের ক্ষেত্রে গ্রাহক পরিচয় নিশ্চিত করণের লক্ষ্যে বায়োমেট্রিক্স ভেরিফিকেশন বাধ্যতামূলক করেছে। এর মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে মোবাইল গ্রাহকদের সঠিক পরিচয় নিশ্চিত করা। পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী গেল ৩০ এপ্রিল পুনরনিবন্ধনের সময়সীমা শেষ হওয়ার কথা থাকলেও, প্রতিকূল আবহাওয়ার কারণে গ্রাহকদের দুর্ভোগের কথা চিন্তা করে সময়সীমা এ মাসের ৩১ তারিখ পর্যন্ত বর্ধিত করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত সকল অপারেটরে ৯ কোটি ৭০ লক্ষ ৮৫ হাজার ৭৪১টি সংযোগের গ্রাহক পরিচয় নিশ্চিত করা সম্ভব হয়েছে। উল্লেখ্য, কমিশনের নিকট অভিযোগ প্রদানের পূর্ববর্তী মাধ্যমগুলোও যথা ই-মেইল, ওয়েব বক্স এবং লিখিতপত্র ইত্যাদিও চালু থাকবে। গ্রাহকদের কাছ থেকে প্রাপ্ত সকল অভিযোগের সমাধান এবং এ সংক্রান্ত কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য কমিশনে গঠনকৃত ‘কমপ্লেইন্ট ম্যানেজমেন্ট টাস্কফোর্স’ সামগ্রিক বিষয়টি তদারকি করবে।

 

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top