শিরোনাম

শুক্রবার, অক্টোবর 20, 2017 - ইন্টেলের ৮ জেন কোর প্রসেসর বাইনারি লজিকে | বৃহস্পতিবার, অক্টোবর 19, 2017 - গুগল ফটোসে যে ভাবে ব্যক্তিগত ছবি ও ভিডিও লুকাবেন | বৃহস্পতিবার, অক্টোবর 19, 2017 - মধ্যবিত্তের কথা ভেবে সস্তায় মাইক্রোম্যাক্সের নতুন ফোন | বৃহস্পতিবার, অক্টোবর 19, 2017 - নতুন ফিচারের ক্যামেরা নিয়ে উন্মুক্ত হলো নোকিয়া ৭ | বৃহস্পতিবার, অক্টোবর 19, 2017 - পেপালের ‘জুম’ উদ্বোধন করলেন সজীব ওয়াজেদ জয় | বৃহস্পতিবার, অক্টোবর 19, 2017 - ম্যাক্সেল এর বিভিন্ন পণ্য নিয়ে আইসিটি এক্সপোতে মেট্রো কভারেজ | বৃহস্পতিবার, অক্টোবর 19, 2017 - সিঙ্গাপুরের মাস্টারকার্ড গ্লোবাল রিস্ক লিডারশিপ কনফারেন্স অনুষ্ঠিত | বৃহস্পতিবার, অক্টোবর 19, 2017 - শুরু হলো এমসিসিআই অগ্রগামী ২০১৭ | বৃহস্পতিবার, অক্টোবর 19, 2017 - বিএমই দিচ্ছে আইসিটি এক্সপো উপলক্ষে তোশিবা পণ্যে বিশেষ অফার! | বৃহস্পতিবার, অক্টোবর 19, 2017 - আইসিটি এক্সপো তে আসুসের সর্বাধুনিক প্রযুক্তির নোটবুক |
প্রথম পাতা / সাম্প্রতিক খবর / ফিচার পোস্ট / ডিজিটাল কনটেন্ট ও কানেকটিভিটি নিয়ে সংলাপ অনুষ্ঠিত
ডিজিটাল কনটেন্ট ও কানেকটিভিটি নিয়ে সংলাপ অনুষ্ঠিত

ডিজিটাল কনটেন্ট ও কানেকটিভিটি নিয়ে সংলাপ অনুষ্ঠিত

বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে চলছে তৃতীয় ও শেষ দিনের ‘গ্রামীণফোন স্মার্টফোন ও ট্যাব এক্সপো ২০১৬’। এ আয়োজনের অংশ হিসেবে শনিবার সকাল ১১ টার দিকে অনুষ্ঠিত হয় ডিজিটাল কনটেন্ট ও কানেকটিভিটি নিয়ে বিশেষ সংলাপ। সংলাপে বক্তারা ডিজিটাল কনটেন্ট ও ইন্টারনেট সংযোগ বাড়ানোর গুরুত্ব নিয়ে আলোচনা করেন। কনটেন্ট ও কানেকটিভিটির প্রসারে সবাইকে একসঙ্গে কাজ করার তাগিদ দেন।

Digital-Content-&-Connectivity-corporateএই সংলাপে আলোচক হিসেবে ছিলেন বেসিস সভাপতি শামীম আহসান, গ্রামীণফোনের চিফ কর্পোরেট অ্যাফেয়ার্স অফিসার মাহমুদ হোসেন, বাংলাদেশ মোবাইল ফোন ইমপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক রেজওয়ানুল হক, মাইক্রোসফট বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজার সোনিয়া বশির কবির ও টেলিকম রিপোর্টার্স নেটওয়ার্ক বাংলাদেশের সভাপতি রাশেদ মেহেদী। সঞ্চালনা করেন বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্ক (বিডিওএসএন) এর সাধারণ সম্পাদক মুনির হাসান।

বেসিস সভাপতি শামীম আহসান বলেন, তথ্যপ্রযুক্তিতে উন্নত বাংলাদেশ গড়তে শুধুমাত্র ইন্টারনেট কিংবা স্মার্টফোন ব্যবহারকারী বাড়লেই হবে না, প্রয়োজন দেশি কনটেন্ট। আর তাই দেশের কনটেন্ট ডেভেলপারদের ব্যবসায় প্রসারে প্লাটফর্ম দেবে বেসিস। কানেক্টিং স্টার্টআপ, সিডস্টারস ওয়ার্ল্ড, ইনকিউবেটরে জায়গা বরাদ্ধ, বাংলাদেশ ব্যাংকের ইইএফ লোন সুবিধা, ফেনক্সসহ বিভিন্ন ভেঞ্চার ক্যাপিটাল থেকে বিনিয়োগসহ তাদের মানোন্নয়নে প্রয়োজনীয় সকল সুবিধা দেওয়া হবে।

গ্রামীণফোনের চিফ কর্পোরেট অ্যাফেয়ার্স অফিসার মাহমুদ হোসেন বলেন, আমরা বিভিন্ন জরিপে দেখেছি দেশে এখনো ৯০ শতাংশের বেশি মানুষ মোবাইল ফোনে ইন্টারনেট ব্যবহার করে থাকেন। গ্রামীণফোনের হিসেবে স্মার্ট ডিভাইসের ব্যবহারের গ্রোথ এখন ১৯ শতাংশ। আমাদের আসলে ইন্টারনেট পেনিট্রেশন বেড়েছে। এর সঙ্গে কনটেন্টও বাড়াতে হবে। অবশ্য এই কনটেন্ট বাড়াতে শুধু একটি অপারেটর কাজ করলে হবে না। সবাইকে কাজ করতে হবে।

মাইক্রোসফট বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজার সোনিয়া বশির কবির বলেন, আমাদের কাজ করতে হবে মানুষের প্রয়োজন বুঝে। তাই শুধু কনটেন্ট ডেভেলপ করলেই হবে না। এর সঙ্গে অবশ্যই আমাদের কানেক্টিভিটি নিশ্চিত করতে হবে। তবে আমার মনে হয় টেলিকম অপারেটরদের এই বিষয়ে ভ‚মিকা রাখতে হবে জোরালোভাবে।

বাংলাদেশ মোবাইল ফোন ইমপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক রেজওয়ানুল হক বলেন, আমাদের অবশ্যই স্মার্ট ডিভাইসের যোগান দিতে হবে আগে। পাঁচ বছর আগে যখন মোবাইল আমদানী করা হতো তখন স্মার্টফোনের পরিমাণ ছিল মাত্র এক শতাংশ। তবে সেই পরিমাণ এখন বাড়তে শুরু করেছে। শুধু ২০১৪ সালে স্মার্টফোন বিক্রি হয়েছে প্রায় ৩০ লাখ। আর ২০১৫ সালে সেই সংখ্যা দাঁড়ায় ৬০ লাখ। আমরা চেষ্টা করছি খুবই স্বল্প মূল্যে সবার হাতে স্মার্টফোন তুলে দেওয়ার। এই গ্রোথটা অব্যহত থাকলে আমাদের দেশে চলতি বছরে প্রায় ৯০ লাখ স্মার্টফোন বিক্রি হবে। আসলে আমরা যদি কানেক্টিভিটি দিতে চাই তবে অবশ্যই আমাদের সবার হাতে স্মার্ট ডিভাইসের ব্যবস্থা করতে হবে।

টেলিকম রিপোর্টার্স নেটওয়ার্ক বাংলাদেশের সভাপতি রাশেদ মেহেদী বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে আমাদের সবই আছে। ফাইবার অপটিক ক্যাবল আছে, আছে পর্যাপ্ত অবকাঠামো সুবিধা। আসলে আমাদের একটা ডিজিটাল হাইওয়ে দরকার। আর এর বাইরে দরকার তা হলো সরকারকে এর বাস্তবায়নে আরো সক্রিয় হওয়া।

ডিজিটাল কনটেন্ট ও কানেকটিভিটি সংলাপ শুরু হয় গ্রামীণফোনের ডিজিটাল ও ডিভাইসের জেনারেল ম্যানেজার মুনতাসির হোসেনের একটি প্রেজেন্টেশনের মধ্য দিয়ে। আলোচকরা অংশগ্রহণকারীদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন।

দেশের ব্যবহারকারীদের আধুনিক স্মার্টফোন ও ট্যাবলেট কম্পিউটার পরখ করে দেখার ও কেনার সুযোগ করে দিতে বৃহস্পতিবার থেকে চলছে তিন দিনের এই স্মার্টফোন ও ট্যাব মেলা। এক্সপো মেকারের আয়োজনে পঞ্চমবারের মতো রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এই মেলা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। আজ আনুষ্ঠানিকভাবে শেষ হবে এই মেলা।

আরও পড়ুন:

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top