শিরোনাম

বুধবার, জুলাই 26, 2017 - শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক এর ঋণ সহায়তা পাবেন বেসিস সদস্যরা | বুধবার, জুলাই 26, 2017 - উন্মুক্ত হলো শাওমি এমআই ৫এক্স | বুধবার, জুলাই 26, 2017 - ক্যাসপারস্কি অ্যান্টিভাইরাস পাওয়া যাবে বিনামূল্যে | বুধবার, জুলাই 26, 2017 - ৩৩ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরাসহ নোকিয়ার নতুন ফোন | বুধবার, জুলাই 26, 2017 - লেনোভোর ট্যাবে নতুন চমক | বুধবার, জুলাই 26, 2017 - উইমেন্স ইনোভেশন ক্যাম্প-২০১৭ এর উদ্বোধন | বুধবার, জুলাই 26, 2017 - সাশ্রয়ীমূল্যে ইন্টারনেট সেবা পেতে আন্তর্জাতিক জোটে যুক্ত হলো বাংলাদেশ | বুধবার, জুলাই 26, 2017 - অপো আকর্ষণীয় কনজ্যুমার অফার ঘোষণা করেছে | বুধবার, জুলাই 26, 2017 - ডুয়াল রিয়ার ক্যামেরার ফ্ল্যাগশিপ Symphony Z9 | বুধবার, জুলাই 26, 2017 - মাল্টিমিডিয়া কিংডমে হুইনের গ্রাফিক্স ট্যাবলেটে ২৫ শতাংশ ছাড় |
প্রথম পাতা / ইন্টারভিউ / তথ্যপ্রযুক্তি খাতে দক্ষ লোকবল তৈরি করবে ইউওয়াইএস
তথ্যপ্রযুক্তি খাতে দক্ষ লোকবল তৈরি করবে ইউওয়াইএস

তথ্যপ্রযুক্তি খাতে দক্ষ লোকবল তৈরি করবে ইউওয়াইএস

farhana-uysসময়ের সাথে সাথে দেশ যতই এগিয়ে যাচ্ছে দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন ততই আইটি নির্ভর হয়ে পড়ছে। যার ফলে আইটি সেক্টর হয়ে উঠেছে ক্যারিয়ার ডেভেলপমেন্টের জন্য তরুণ- প্রজন্মের  প্রথম পছন্দ। সাফল্যের সঙ্গে শতশত শিক্ষার্থীকে প্রফেশনাল প্রশিক্ষণ প্রদান, আত্মকর্মসংস্থানে সহায়তা ও দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে যুগান্তকারী ভূমিকা পালন করার লক্ষ্যেই তথ্যপ্রযুক্তিতে ‘ইন্ডাস্ট্রিয়াল স্ট্যান্ডার্ড’ দক্ষ লোকবল তৈরিতে উদ্যোগ নিয়েছে ইউওয়াইএস নামক একটি প্রতিষ্ঠান।

ডিজিটাল হচ্ছে বাংলাদেশ। সে লক্ষ্য পূরনে প্রয়োজন হাজারো সুদক্ষ পেশাদার আইটি প্রফেশনাল। তবে দক্ষ প্রফেশনাল হতে আধুনিক মানের প্রশিক্ষন কেন্দ্রের বিকল্প নেই। অন্যদিকে দেশের তরুনদের আগ্রহের পেশা এখন আইটি প্রফেশনাল হওয়া। বাংলাদেশে পেশাদারি আইটি কেন্দ্রের কোর্স মডিউল ও বিশ্বমানের মার্কেটপ্লেসে কাজের উপযোগী প্রশিক্ষনের কারনে এরই মধ্যে ইউওয়াইএস ল্যাব জনপ্রিয়তা ও গ্রহণযোগ্যতা পেয়েছে। এই সাফল্যের পিছনে ইউওয়াইএস ল্যাবের আইটি শিল্পে সফল ও অভিজ্ঞ আইটি প্রফেশনাল পরিচালনা পর্ষদের নিরলস, দক্ষ ও অভিজ্ঞতার আলোকে পরিচালনা বিশেষ অবদান রেখেছে।

uysisভিন্ন ধরণের এই আইটি প্রশিক্ষন প্রতিষ্ঠানের লক্ষ্য, উদ্দেশ্য এবং কার্যক্রম প্রসঙ্গে গনমাধ্যমের সঙ্গে মতবিনিময়ের উদ্দেশ্যে এই সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। সম্মেলনের সভাপতিত্ব করেন প্রতিষ্ঠানের চেয়ারপারসন ফারহানা এ রহমান। প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম সংক্রান্ত মূল বক্তব্য রাখেন চেয়ারপারসন ফারহানা এ রহমান ও সিওও মো. শাহাদাৎ হোসাইন। এছাড়াও আরও উপস্থিত ছিলেন প্রতিষ্ঠানের সিইও আলিয়া হামিদ। বাংলাদেশের বেশিরভাগ সরকারি বা বেসরকারি আইটি প্রশিক্ষন কেন্দ্রগুলোর মধ্যে একটি বিষয় লক্ষ্য করা গেছে, তা হল গতানুগতিক আইটি কোর্স ও মডিউল দিয়ে প্রশিক্ষন দেয়া। কিন্তু বর্তমান অবস্থার প্রেক্ষিতে দেখা গেছে গৎবাঁধা আইটি বেসিক জ্ঞানের চাইতে কোন বিশেষ আইটি বিষয়ের উপর বাস্তব কারিগরি দক্ষতা ও অভিজ্ঞতা ক্যারিয়ারের উত্তরোত্তর সাফল্য নিশ্চিত করে। অনেক প্রাতিষ্ঠানিক জটিল সিদ্ধান্ত ও প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার জন্য মেধার পাশাপাশি অ্যাডভান্সড আইটি জ্ঞান থাকা জরুরী। এমন অবস্থার প্রেক্ষিতে ইউওয়াইএস ল্যাব অ্যাডভান্সড আইটি কোর্সের উপর বরাবর জোর দিয়ে আসছে, যেখানে প্রশাসনিক উচ্চ পদে নিয়োজিত কর্মীদের আইটি দক্ষতা নিশ্চিত করার পাশাপাশি আইটি শিল্পোন্নয়নে অবদান রাখতে পারেন তা নিশ্চিত করা হয়। ইউওয়াইএস ল্যাব ইন্ডাস্ট্রি স্ট্যান্ডার্ড আইটি প্রশিক্ষনের উপর বরাবর জোর দিয়ে এসেছে এবং আইটি কোর্সের উপর গৎবাঁধা প্রশিক্ষনের পরিবর্তে ইন্ডাস্ট্রির প্রয়োজনের অ্যাডভান্সড আইটি প্রশিক্ষনে জোর দিয়েছে।

uysis1বিশ্বমানের প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের আদলে তৈরি ইউওয়াইএস ল্যাবে আছে ৪৫০০ স্কয়ার ফিটের সুপরিসর জায়গা, ৩টি ক¤িপউটার ল্যাবে একসঙ্গে ১০০ জন বসার সুব্যবস্থা, ৯০টি ক¤িপউটার, ইন্টেরিওর করা সুপরিসর ক¤িপউটার ল্যাব, সুবিশাল প্রোজেক্টর সেট, গ্লাস বোর্ড ও সার্বক্ষণিক ওয়াইফাই সুবিধা। ইন্ডাস্ট্রি এক্সপার্টদের তত্ত্বাবধানে আন্তর্জাতিক মার্কেটপ্লেসে ফ্রিল্যান্সিং কাজের অভিজ্ঞতা ও কাজের সুযোগ। এছাড়া কারিগরি ও সর্বস্তরের শিক্ষার্থীদের জন্য ইন্ডাস্ট্রিয়াল অ্যাটাচমেন্ট প্রশিক্ষণের সুযোগ দেয়া হয়। পরিক্ষার মাধ্যমে যাচাই করে মেধাবী শিক্ষার্থীদের জন্য শতভাগ স্কলারশিপ দেয়া হচ্ছে। বর্তমান কোর্সগুলো হচ্ছে অ্যাডভান্সড গ্রাফিক ডিজাইন, প্রফেশনাল ওয়েব ডিজাইন, ওয়েব ডেভলপমেন্ট এবং ডিজিটাল মার্কেটিং।

বর্তমানে প্রতিষ্ঠানটির পরিকল্পনা রছেছে ১০০ ব্যক্তিকে তারা ফ্রি প্রশিক্ষণ প্রদান করবেন। এই প্রসঙ্গে প্রতিষ্ঠানটির সিওও শাহাদাত হোসাইন বলেন,‘ প্রথম ধাপে আমরা ৫০ জনকে ফ্রি গ্রাক্সি ডিজাই প্রশিক্ষণ দিবো। ইতোমধ্যে ৪ হাজার ৫০০ আগ্রহী এই প্রশিক্ষণের জন্য আবেদন করেছ। আমরা এর মথ্যথেকে ৫০ জনকে বেছে নিবো। এ বছরের জুন থেকে শুরু হবে ওয়েভ ডিজাইনের উপর প্রশিক্ষণ। সেখানেও আমরা ৫০ জনকে ফ্রি প্রশিক্ষণ দেবো। যারাই এখান থেকে প্রশিক্ষণ নিবেন তাদেরকে কয়েকটি পরীক্ষা দিতে হবে। পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে তাদেকে একটি আন্তর্জতিক মানের সনদ প্রদান করা হবে। আমাদের এই কার্যের সাথে রয়েছে কারিগরি শিক্ষা বোর্ড। তিনি আরও জানান, ফ্রি প্রশিক্ষণ ছাড়াও রয়েছে বিভিন্ন মেয়াদের প্রশিক্ষণ ।

putul-farhanaআগ্রহীরা চাইলে আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেন। আমরা তাদেরকে যাচাই বাছাই করে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করতে পারি। ইউওয়াইএস এর প্রেসিডেন্ট ফারহানা এ রহমান বলেন, ‘এই মুহুর্তে বাংলাদেশে অনেক আইটি দক্ষের অভাব রয়েছে। আমরা এই অভাব দূর করতে জোড় চেষ্টা করছি। গ্রাফিক্স ডিজাইন, ওয়েভ ডিজাইন, ডিজিটাল মার্কেটিং, বিগ ডাটা, জাভা, গেইম ডেভেলপমেন্টসহ বিভিন্ন সেক্টরে আরমা দক্ষ লোকবল তৈরিতে কাজ করে যাচ্ছি। বাংলাদেশ একটি সম্ভাবনার দেশ। এখানে চাইলে অনেক কিছুই সম্ভব। বিদেশি বিনোয়োকারীরা তথ্যপ্রযুক্তি খাতে বিনোয়োগ করতে আগ্রহী কিন্তু, আমারা দক্ষ লোকবলের অভাবে বিনিয়োগে সাড়া দিতে পারছি না। দেশের পলিসিগত কারণ, মেয়েদের এই খাতের প্রতি আগ্রহ কম থাকাসহ বিভিন্ন কারণে ুতথ্যপ্রযুক্তি খাতে দক্ষ লোকবল তুলনামূলক কম তৈরি হচেছ। অনেক প্রতিষ্ঠান উদ্যোগ নিচ্ছে না এই ভেবে- আমি যদি অনেক ব্যয় করে কয়েকজন দক্ষ লোক তৈরি করি আর সে যদি আমার প্রতিষ্ঠান ছেড়ে অন্যত্র চলে যায় তাহলে আমার আর্থিক ক্ষতি ও আমার প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন ইনফরমেশন এর ক্ষতি হবে। এই ধারণা থেকে আমাদের বেড়িয়ে আসতে হবে। দেশে যথেষ্ট পরিমান দক্ষ লোকবল থাকলে আমাদের এমন ভাবনা করতে হবে না।’ ফারহানা এ রহমান আরও বলেন,‘ কয়েকদিন আগে একটি রিপোর্ট দেখে ছিলাম সেখানে লেখা- ‘তথ্যপ্রযুক্তি খাতে যতো লোক কাজ করে তার ১০ শতাংশের কম হলো নারী’।

আমি ব্যক্তিগত ভাবে নারীদেরকে এই খাতে কাজ করার জন্য আগ্রহী করছি। আমি যখন বেসিস- এর পরিচালক তখন বেসিসে কোনো নারীরা আসা যাওয়াও করে না। আমি নারীদের উদ্দেশ্যে বলতে চাই, তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহার বলতে আপনারা শুধু মাত্র ফেসবুক, মেইল আদান- প্রদান, ভিডিও দেখাকেই বুঝেন। আবার কেউ কেউ ভাবে ইন্টারনেট ব্যবহার মানে খারপ কিছু। আপনারা এগিয়ে আসেন। আপনারা দক্ষ শক্তিতে রুপান্তর হোন। আমি আপনাদের জন্য সর্বক্ষণ রয়েছি।’ যাদেরকে দিয়ে এই ট্রেনিং পরিচালনা করা হবে সে সম্পর্কে তিনি বলেন,‘এই মুহুর্তে তথ্যপ্রযুক্তি ইন্ডাষ্ট্রিতে যারা সফল ভাবে কাজ করছে তাদেরকে দিয়েই আমরা ট্রেনিং কার্য পরিচালনা করবো।’ তিনি জানান, প্রতি বছর তিন হাজার দক্ষ লোকবল তৈরির পরিকল্পনা রয়েছে তাদের। আগামী ১০ বছর পর তথ্যপ্রযুক্তির শক্ত একটি অবস্থান দেখতে চান তিনি।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top