শিরোনাম

বৃহস্পতিবার, আগস্ট 17, 2017 - গ্রামীণফোনের সিএফও হলেন কার্ল এরিক ব্রোতেন | বৃহস্পতিবার, আগস্ট 17, 2017 - বন্যা-দুর্গত এলাকার গ্রাহকদের ২০মিনিট ফ্রি টক-টাইম ও ২০এমবি ডাটা দিচ্ছে রবি | বৃহস্পতিবার, আগস্ট 17, 2017 - এটিএমের গোপন নম্বর চোরেরা যেসব উপায়ে হাতিয়ে নিতে পারে | বৃহস্পতিবার, আগস্ট 17, 2017 - শাওমির স্মার্টফোন পেতে পারেন মাত্র ১ টাকায়! | বৃহস্পতিবার, আগস্ট 17, 2017 - ওয়ালটনের ২০ এমপি ফ্রন্ট ক্যামেরার নতুন স্মার্টফোন | বৃহস্পতিবার, আগস্ট 17, 2017 - প্রযুক্তি পণ্যকে জনপ্রিয় করতে কাজ করবে ক্যানন | বৃহস্পতিবার, আগস্ট 17, 2017 - কেন কলরেট বৃদ্ধি করতে চায় বিটিআরসি? | বৃহস্পতিবার, আগস্ট 17, 2017 - নিজেকে আরও স্মার্ট বানাতে চান? চুপিসারে জেনে নিন এই টিপসগুলো | বৃহস্পতিবার, আগস্ট 17, 2017 - সস্তার হাইটেক স্মার্টফোন | বৃহস্পতিবার, আগস্ট 17, 2017 - জেনে নিন আপনার পাসওয়ার্ড হ্যাক হয়েছে কি না? |
প্রথম পাতা / সাম্প্রতিক খবর / পাবলিক টয়লেট অ্যাপ এর পুরস্কার লাভ
পাবলিক টয়লেট অ্যাপ এর পুরস্কার লাভ

পাবলিক টয়লেট অ্যাপ এর পুরস্কার লাভ

apps ভারতের দিল্লীতে এম বিলিয়ন্থ অ্যাওয়ার্ডের মঞ্চে অনুষ্ঠিত হল ওয়ার্ল্ড সামিট এওয়ার্ড এর পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠান।  বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে আসা বিজয়ী প্রতিষ্ঠানগুলোর সাথে সাথে বাংলাদেশও এতে যোগ দেওয়ার গৌরব অর্জন করে।  বাংলাদেশ থেকে এর প্রতিনিধিত্ব করে প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান প্রেনিউর ল্যাব।

প্রতি বছর ওয়ার্ল্ড সামিট অ্যাওয়ার্ড সারা বিশ্ব থেকে উন্নয়নমূলক কাজে ব্যবহারের জন্য সেরা অ্যাপ গুলোকে পুরস্কৃত করে। এ বছর জাতিসংঘ এর আওতাভুক্ত দেশগুলোর মধ্যে থেকে ৪৫১ টি অ্যাপ প্রাথমিক ভাবে মনোনীত করা হয়েছিল। তার মধ্যে থেকে বাছাইকৃত সেরা অ্যাপগুলোকে ওয়ার্ল্ড সামিট অ্যাওয়ার্ড ২০১৬ দেয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ থেকে এই পুরষ্কার এর জন্য নির্বাচিত হয়েছিল পাবলিক টয়লেট অ্যাপ। এটি স্মার্ট সেটেলমেন্ট এবং আরবানাইজেশন বিভাগে সেরা অ্যাপ হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিল। ওয়ার্ল্ড সামিট অ্যাওয়ার্ড সাধারণত বৈচিত্র্যপূর্ণ মোবাইল কনটেন্ট এবং সামাজিক উন্নয়নে এটি কতটুকু অবদান রাখতে পারবে তার উপর ভিত্তি করে দেয়া হয়।

প্রেনিউর ল্যাবের প্রধান নির্বাহী আরিফ নিজামী বলেন, “পাবলিক টয়লেট একটা সাধারণ বিষয় মনে হলেও সময় মত টয়লেট না ব্যবহার করলে স্বাস্থ্য ঝুঁকি বাড়ে। বেশি দিন সময়মত টয়লেট ব্যবহার না করলে কিডনি রোগ ও অন্ত্রে নানান রোগ হবার আশঙ্কা থাকে। একইসঙ্গে রাস্তা-ঘাটে মলমূত্র ত্যাগ পরিবেশে বিপর্যয় ডেকে আনে। এসব বিবেচনা করেই প্রেনিউর ল্যাব এমন একটি অ্যাপ তৈরিতে হাত দেয়।”

ব্যাপারটি অতি সামান্য মনে হলেও আসলে বেশ জটিল । ট্রাফিক জ্যাম বা রাস্তায় কোন কারণে সময়মত ব্যবহার না করলে তার স্বাস্থ্যগত ক্ষতি হিসেব করলে শুধু ঢাকা শহরেই কয়েকশ কোটি টাকা । এছাড়া রাস্তায় যারা খোলা জায়গায় মল মূত্র ত্যাগ করে তার জন্য ক্ষতি হচ্ছে পরিবেশ এবং পরোক্ষ স্বাস্থ্য ক্ষতি অবর্ণনীয় ।

এক্সেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) এর আর্থিক সহযোগিতায় এই অ্যাপটি নিয়ে কাজ করছে দেশীয় প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান প্রেনিউর ল্যাব সঙ্গে কারিগরি সহায়তা দিয়েছে ওয়াটার এইড বাংলাদেশ । বর্তমানে বিভিন্ন ডিজিটাল সার্ভিস, কমিউনিটি ইনিশিয়েটিভস এবং টেক প্রোডাক্টস নিয়ে কাজ করছে প্রেনিয়র ল্যাব । কোম্পানির সিইও আরিফ নিজামী যিনি ইন্টারন্যাশনাল ভিজিটর লিডারশিপ প্রোগ্রাম ও ইউএস  ডিপার্টমেন্ট অফ স্টেট এর এলামনাই এবং গুগল ডেভেলপার গ্রুপ ঢাকার এডভাইজার। প্রেনিউর ল্যাব ২০১৬ সালে পাবলিক টয়লেট  অ্যাপ এর জন্য “ব্র্যাক মন্থন ডিজিটাল ইনোভেশন অ্যাওয়ার্ড” ও প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের ইনোভেশন ফান্ড লাভ করে। সম্প্রতি প্রেনিউর ল্যাব টয়লেটস ডট গ্লোবাল নামে সারা বিশ্বব্যাপী স্যানিটেশন সমস্যা সমাধানে কাজ শুরু করছে ।

অ্যাপটি দ্বারা যে কেউ আসেপাশের পাবলিক টয়লেট খুঁজে নিতে পারবে । সাথে জানতে পারবে পরিচ্ছনতা অবস্থা, নারী উপযোগী কিনা, কয়টি রুম আছে, লাগেজ রাখার ব্যবস্থা আছে কিনা, খাবার পানি ব্যবস্থা, ব্যবহারের চার্জসহ প্রতিটি টয়লেটের প্রায় ১৯টি তথ্য । এছাড়া নিজের বাসা / অফিসের টয়লেট যে কেউ চাইলে ব্যবহারকারীদের জন্য বিনামূল্যে বা সার্ভিস চার্জ নিয়ে উন্মুক্ত করে দিতে পারেন ।

প্রতি বছর আন্তর্জাতিক আইসিটি এক্সপার্ট দ্বারা দুইটি রাউন্ড এর মাধ্যমে ওয়ার্ল্ড সামিট অ্যাওয়ার্ড বিজয়ীদের চূড়ান্ত করা হয়। জাতিসংঘ এর আওতাভুক্ত যেকোনো দেশ একটি ক্যাটাগরিতে মনোনয়নের জন্য একটি প্রোডাক্ট জমা দিতে পারে। যেহেতু আন্তর্জাতিক বিচারকদের দ্বারা প্রতিযোগিতার পুরো প্রক্রিয়া টি সম্পন্ন হয় তাই এখানে পক্ষপাতিত্বের কোনো সুযোগ নেই।

ওয়ার্ল্ড সামিট অ্যাওয়ার্ড হলো ইউনাইটেড নেশন ওয়ার্ল্ড সামিট ইনফরমেশন সোসাইটি এর একটি বিশ্বব্যাপী উদ্যোগ। এটি একটিমাত্র আইসিটি ইভেন্ট যা বিশ্বের ১৭৮ টি দেশের মোবাইল কনটেন্ট নিয়ে কাজ করে। এটি মূলতঃ সামাজিক ও আন্তর্জাতিক উন্নয়নের জন্য নির্মিত মোবাইল কনটেন্ট গুলো কে বিশ্বের সামনে তুলে ধরে।

 

 

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top