শিরোনাম

সোমবার, সেপ্টেম্বর 25, 2017 - ডি-লিংক এর স্পেশাল অফার | সোমবার, সেপ্টেম্বর 25, 2017 - রংতা ব্র্যান্ডের নতুন পিওএস প্রিন্টার | সোমবার, সেপ্টেম্বর 25, 2017 - নারীর নিরাপত্তা ও শরনার্থীদের শিক্ষা বিষয়ক ধারণা যাচ্ছে ওসলোর টেলিনর ইয়ুথ ফোরামে | রবিবার, সেপ্টেম্বর 24, 2017 - উদ্বোধনের অপেক্ষায় শেখ হাসিনা সফটওয়্যার পার্ক | রবিবার, সেপ্টেম্বর 24, 2017 - আপনারই কিছু ভুল হয়তো অজান্তে ফোনের পারফরম্যান্স খারাপ করছে | রবিবার, সেপ্টেম্বর 24, 2017 - খুলনায় দুইদিনের বেসিক আরডুইনো কর্মশালা অনুষ্ঠিত | রবিবার, সেপ্টেম্বর 24, 2017 - ঢাকা মহিলা পলিটেকনিককে স্যামসাং এর পক্ষ থেকে অত্যাধুনিক ল্যাব হস্তান্তর  | রবিবার, সেপ্টেম্বর 24, 2017 - সিডস্টারস ঢাকায় দেশের সেরা স্টার্টআপ সিমেড হেলথ | রবিবার, সেপ্টেম্বর 24, 2017 - অ্যান্ড্রয়েড ফোনকে মডেম হিসেবে ব্যবহারের উপায় | রবিবার, সেপ্টেম্বর 24, 2017 - আসছে নকিয়ার আরও দুই ফোন |
প্রথম পাতা / সাম্প্রতিক খবর / গেমস / ভার্চুয়াল রূপকন্যা
ভার্চুয়াল রূপকন্যা

ভার্চুয়াল রূপকন্যা

রক্ত-মাংসের সুন্দরীদের চেয়ে কম জনপ্রিয় নয় ভার্চুয়াল সুন্দরীরা। তাদেরও আছে মোস্ট বিউটিফুল,হটেস্ট গার্ল কিংবা সেক্সিয়েস্ট ওমেনসহ রূপ-গুণের নানা ধারার তালিকা।শুধু ভিডিও গেমস জগতেই তাদের দৌরাÍ্য সীমাবদ্ধ থাকলেও সেসব তালিকায় প্রথম সারির সুন্দরী হিসেবে নাম লেখানো নিতান্ত হেলাফেলা নয়। মানুষের কল্পনা এবং পরিশ্রমের ফলে তাদের সৃষ্টি, আবার বিভিন্ন বয়স এবং মানসিকতার ভিডিও গেমারদের ভোটেই ভার্চুয়াল সুন্দরীদের গায়ে লাগে শ্রেষ্ঠত্বের তকমা।
ভিডিও গেমসের জগৎ থেকে জনপ্রিয়তায় শ্রেষ্ঠত্বের দাবিদার এমন ক’জন রূপে-গুণে অনন্যাকে নিয়েই ভার্চুয়াল সুন্দরী কথন। এসব গেমসে টিনএজারদের আগ্রহ বেশি বলে এই ভার্চুয়াল সুন্দরীদের নিয়েই সাজানো হলো এবারের প্রচ্ছদ আয়োজন। লিখেছেন তুতুরী হক
297-vrtual
অ্যাডা ওং
রেসিডেন্ট এভিল
রেসিডেন্ট এভিল গেমসটি শুরু থেকেই টিনএজারদের কাছে তুমুল জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। এর মূল নায়িকা জিল ভ্যালেন্টাইন হলেও সুন্দরী হিসেবে ভক্তদের তালিকায় তাকে হটিয়ে এগিয়ে রয়েছে গেমসটির আরেক চরিত্র অ্যাডা ওং। গেমিং জগতের এ অনন্যাকে রূপালি পর্দায় ফুটিয়ে তুলতে গিয়ে ক্যামেরার সামনে বেশ কাঠখড় পোড়াতে হয়েছে ইউক্রেন বংশোদ্ভূত হলিউডের লাস্যময়ী অভিনেত্রী মিলা জভোভিচকে। দিন দিন গেমসটির নতুন ভার্সনগুলো যেমন আরও আকর্ষণীয় ও অনবদ্য হয়ে উঠছে, তার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে অ্যাডার রূপ-গুণও যেন একটু বেশি মাত্রায়ই প্রস্ফুটিত হয়েছে।
ইউনা
ফাইনাল ফ্যান্টাসি এক্স
টিনএজারদের আরেক পছন্দের গেমস ফাইনাল ফ্যান্টাসি এক্স। এর চরিত্র কমনীয়, আদুরে এবং ধীরস্থির জাপানি মেয়ে ইউনা অ্যাকশনে দুর্দান্ত হলেও কিছুটা রক্ষণশীল। ভিডিও গেমসে দেশীয় সংস্কৃতি ধরে রাখতে গিয়ে সে কিছুটা পিছিয়ে আছে ভার্চুয়াল সুন্দরীদের তালিকায়। তবে ফাইনাল ফ্যান্টাসি এক্স-টুতে রক্ষণশীলতাকে শিকেয় তুলে তার হটশট উপস্থিতি নতুন করে ঝড় তুলেছে গেমারদের মনে।
জোয়ানা ডার্ক
পারফেক্ট ডার্ক
লালচে রঙের খাটো চুলের মেয়েটিকে দেখলেই বোঝা যায়, শত্র“দের ছাড় দেওয়ার পাত্রী নয় সে।
আকর্ষণীয় দেহ, ক্ষুরধার চেহারা, দৃঢ় ব্যক্তিত্ব ও তীক্ষষ্ট বুদ্ধিমত্তার অধিকারিণী এ মেয়েটি শত্র“
শিবিরে ঝড় তোলা শুরু করে এ শতাব্দীর শুরু থেকে। তবে ২০০৫ সালে আরও শক্তিশালী রূপে
আবির্ভূত হয়ে ভক্তদের মনে নতুন স্থান তৈরি করে নিয়েছে অন্ধকারের এ রাজকন্যা।
জেলদা
দ্য লিজেন্ড অব জেলদা
হটশট সুন্দরীদের হেভিওয়েট অ্যাকশনের গণ্ডি ছাড়িয়ে দুঃখী এক রাজকন্যাকে তার ন্যায্য পাওনা
আদায়ে প্রায় সব বয়সী গেমারদের পাশে পায় জেলদা নামের এই রাজকুমারী। নব্বই দশকের শুরু
থেকেই রূপকথার পাতা থেকে উঠে আসা এ প্রিন্সেস প্রযুক্তির পরিবর্তনে সময়ের সঙ্গে প্রতিনিয়ত
নতুন করে স্থান দখল করে নিচ্ছে ভক্তদের মনে। আর তাই অলৌকিক ক্ষমতাস¤পন্ন এ রাজকন্যা
সুন্দরীদের তালিকায় তার অপার্থিব সৌন্দর্যে জুড়ে আছে বিশেষ একটি জায়গা।লারা ক্রফট
টম্ব রাইডার
গেমসের নাম টম্ব রাইডার। এর প্রধান চরিত্র লারা ক্রফট। বাবার নির্দেশিত পথে এগিয়ে চলা এ মেয়ে
অ্যাকশনে দুর্দান্ত। ব্যক্তিত্ব, পড়াশোনা এবং মারপিটে দক্ষ লারাকে ডিজাইন করা হয়েছে আকর্ষণীয়
দেহসৌষ্ঠবের অধিকারিণী হিসেবে। গেমস জগতের অনেকেই মনে করে, ভিডিও গেমসে যে কোনো
নায়িকা চরিত্র তৈরি করা হয় লারা ক্রফটের অনুপ্রেরণায়। এমনকি ভিডিও গেমসের লারা ক্রফটের
জনপ্রিয়তা টম্ব রাইডার সিনেমায় একই চরিত্রে অভিনয় করেও ছুঁতে পারেননি অ্যাঞ্জেলিনা জোলি।
ফারাহ
প্রিন্স অব পার্সিয়া
গেমিং জগতের ভারতীয় এ রাজকন্যা শুধু রূপবতী নায়িকা হিসেবে নয়, বরং নিজেকে উপস্থাপন করে
নায়কের সমান্তরালে থেকেই। যুদ্ধের কূটকৌশল, রণদক্ষতা এবং দায়িত্বশীলতায় অনন্য ফারাহ অন্য
ভার্চুয়াল সুন্দরীদের তুলনায় স্বতন্ত্র এবং অনেকাংশে প্রতিনিধিত্ব করে ভারতীয় ঐতিহ্যের।
টিফা
ফাইনাল ফ্যান্টাসি সেভেন
নায়কের বান্ধবী এবং সহযোগী হিসেবে তৈরি চরিত্র টিফা লকহার্ট। তবে পবিত্র মুখাবয়ব, বন্ধুত্বপূর্ণ
মনোভাব, সরল কিন্তু দৃঢ় চিন্তা-ভাবনা এবং বিচক্ষণতায় পুরো গেমজুড়ে টিফার সাবলীল উপস্থিতি।
১৯৯৭ সাল থেকে টিফার জনপ্রিয়তা বাড়ছে বৈ কমছে না। হটশট নায়িকাদের ইঁদুর দৌড়ে পিছিয়ে
থাকলেও পাশের বাড়ির মেয়ের মতোই আপনজন হিসেবে সবার চেয়ে এগিয়ে রয়েছে টিফা লকহার্ট।
নারিকো
হেভেনলি সোর্ড
তলোয়ারের কোপে এক সেকেন্ডে যেমন শত্র“ ধ্বংস করে, ঠিক তেমনি গেমারদের হৃৎ¯পন্দন
অনিয়মিত করে তোলে নারিকো। অত্যাধুনিক গ্রাফিক্স ডিজাইনের কল্যাণে ঝকঝকে পরিবেশনা, দুর্দান্ত
অ্যাকশনের মধ্যে শারীরিক সৌন্দর্যের চূড়ান্ত উপস্থাপনে নারিকো দুই হাতে শত্র“র জঙ্গল সাফ করতে
করতে এগিয়ে চলে সামনের দিকে।

ভার্চুয়াল রূপকন্যারক্ত-মাংসের সুন্দরীদের চেয়ে কম জনপ্রিয় নয় ভার্চুয়াল সুন্দরীরা। তাদেরও আছে মোস্ট বিউটিফুল, হটেস্ট গার্ল কিংবা সেক্সিয়েস্ট ওমেনসহ রূপ-গুণের নানা ধারার তালিকা। শুধু ভিডিও গেমস জগতেই তাদের দৌরাÍ্য সীমাবদ্ধ থাকলেও সেসব তালিকায় প্রথম সারির সুন্দরী হিসেবে নাম লেখানো নিতান্ত হেলাফেলা নয়। মানুষের কল্পনা এবং পরিশ্রমের ফলে তাদের সৃষ্টি, আবার বিভিন্ন বয়স এবং মানসিকতার ভিডিও গেমারদের ভোটেই ভার্চুয়াল সুন্দরীদের গায়ে লাগে শ্রেষ্ঠত্বের তকমা। ভিডিও গেমসের জগৎ থেকে জনপ্রিয়তায় শ্রেষ্ঠত্বের দাবিদার এমন ক’জন রূপে-গুণে অনন্যাকে নিয়েই ভার্চুয়াল সুন্দরী কথন। এসব গেমসে টিনএজারদের আগ্রহ বেশি বলে এই ভার্চুয়াল সুন্দরীদের নিয়েই সাজানো হলো এবারের প্রচ্ছদ আয়োজন। লিখেছেন তুতুরী হক
অ্যাডা ওং রেসিডেন্ট এভিল রেসিডেন্ট এভিল গেমসটি শুরু থেকেই টিনএজারদের কাছে তুমুল জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। এর মূল নায়িকা জিল ভ্যালেন্টাইন হলেও সুন্দরী হিসেবে ভক্তদের তালিকায় তাকে হটিয়ে এগিয়ে রয়েছে গেমসটির আরেক চরিত্র অ্যাডা ওং। গেমিং জগতের এ অনন্যাকে রূপালি পর্দায় ফুটিয়ে তুলতে গিয়ে ক্যামেরার সামনে বেশ কাঠখড় পোড়াতে হয়েছে ইউক্রেন বংশোদ্ভূত হলিউডের লাস্যময়ী অভিনেত্রী মিলা জভোভিচকে। দিন দিন গেমসটির নতুন ভার্সনগুলো যেমন আরও আকর্ষণীয় ও অনবদ্য হয়ে উঠছে, তার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে অ্যাডার রূপ-গুণও যেন একটু বেশি মাত্রায়ই প্রস্ফুটিত হয়েছে।ইউনাফাইনাল ফ্যান্টাসি এক্সটিনএজারদের আরেক পছন্দের গেমস ফাইনাল ফ্যান্টাসি এক্স। এর চরিত্র কমনীয়, আদুরে এবং ধীরস্থির জাপানি মেয়ে ইউনা অ্যাকশনে দুর্দান্ত হলেও কিছুটা রক্ষণশীল। ভিডিও গেমসে দেশীয় সংস্কৃতি ধরে রাখতে গিয়ে সে কিছুটা পিছিয়ে আছে ভার্চুয়াল সুন্দরীদের তালিকায়। তবে ফাইনাল ফ্যান্টাসি এক্স-টুতে রক্ষণশীলতাকে শিকেয় তুলে তার হটশট উপস্থিতি নতুন করে ঝড় তুলেছে গেমারদের মনে। জোয়ানা ডার্কপারফেক্ট ডার্কলালচে রঙের খাটো চুলের মেয়েটিকে দেখলেই বোঝা যায়, শত্র“দের ছাড় দেওয়ার পাত্রী নয় সে। আকর্ষণীয় দেহ, ক্ষুরধার চেহারা, দৃঢ় ব্যক্তিত্ব ও তীক্ষষ্ট বুদ্ধিমত্তার অধিকারিণী এ মেয়েটি শত্র“ শিবিরে ঝড় তোলা শুরু করে এ শতাব্দীর শুরু থেকে। তবে ২০০৫ সালে আরও শক্তিশালী রূপে আবির্ভূত হয়ে ভক্তদের মনে নতুন স্থান তৈরি করে নিয়েছে অন্ধকারের এ রাজকন্যা। জেলদাদ্য লিজেন্ড অব জেলদাহটশট সুন্দরীদের হেভিওয়েট অ্যাকশনের গণ্ডি ছাড়িয়ে দুঃখী এক রাজকন্যাকে তার ন্যায্য পাওনা আদায়ে প্রায় সব বয়সী গেমারদের পাশে পায় জেলদা নামের এই রাজকুমারী। নব্বই দশকের শুরু থেকেই রূপকথার পাতা থেকে উঠে আসা এ প্রিন্সেস প্রযুক্তির পরিবর্তনে সময়ের সঙ্গে প্রতিনিয়ত নতুন করে স্থান দখল করে নিচ্ছে ভক্তদের মনে। আর তাই অলৌকিক ক্ষমতাস¤পন্ন এ রাজকন্যা সুন্দরীদের তালিকায় তার অপার্থিব সৌন্দর্যে জুড়ে আছে বিশেষ একটি জায়গা।লারা ক্রফটটম্ব রাইডারগেমসের নাম টম্ব রাইডার। এর প্রধান চরিত্র লারা ক্রফট। বাবার নির্দেশিত পথে এগিয়ে চলা এ মেয়ে অ্যাকশনে দুর্দান্ত। ব্যক্তিত্ব, পড়াশোনা এবং মারপিটে দক্ষ লারাকে ডিজাইন করা হয়েছে আকর্ষণীয় দেহসৌষ্ঠবের অধিকারিণী হিসেবে। গেমস জগতের অনেকেই মনে করে, ভিডিও গেমসে যে কোনো নায়িকা চরিত্র তৈরি করা হয় লারা ক্রফটের অনুপ্রেরণায়। এমনকি ভিডিও গেমসের লারা ক্রফটের জনপ্রিয়তা টম্ব রাইডার সিনেমায় একই চরিত্রে অভিনয় করেও ছুঁতে পারেননি অ্যাঞ্জেলিনা জোলি। ফারাহপ্রিন্স অব পার্সিয়াগেমিং জগতের ভারতীয় এ রাজকন্যা শুধু রূপবতী নায়িকা হিসেবে নয়, বরং নিজেকে উপস্থাপন করে নায়কের সমান্তরালে থেকেই। যুদ্ধের কূটকৌশল, রণদক্ষতা এবং দায়িত্বশীলতায় অনন্য ফারাহ অন্য ভার্চুয়াল সুন্দরীদের তুলনায় স্বতন্ত্র এবং অনেকাংশে প্রতিনিধিত্ব করে ভারতীয় ঐতিহ্যের।টিফাফাইনাল ফ্যান্টাসি সেভেননায়কের বান্ধবী এবং সহযোগী হিসেবে তৈরি চরিত্র টিফা লকহার্ট। তবে পবিত্র মুখাবয়ব, বন্ধুত্বপূর্ণ মনোভাব, সরল কিন্তু দৃঢ় চিন্তা-ভাবনা এবং বিচক্ষণতায় পুরো গেমজুড়ে টিফার সাবলীল উপস্থিতি। ১৯৯৭ সাল থেকে টিফার জনপ্রিয়তা বাড়ছে বৈ কমছে না। হটশট নায়িকাদের ইঁদুর দৌড়ে পিছিয়ে থাকলেও পাশের বাড়ির মেয়ের মতোই আপনজন হিসেবে সবার চেয়ে এগিয়ে রয়েছে টিফা লকহার্ট।নারিকোহেভেনলি সোর্ডতলোয়ারের কোপে এক সেকেন্ডে যেমন শত্র“ ধ্বংস করে, ঠিক তেমনি গেমারদের হৃৎ¯পন্দন অনিয়মিত করে তোলে নারিকো। অত্যাধুনিক গ্রাফিক্স ডিজাইনের কল্যাণে ঝকঝকে পরিবেশনা, দুর্দান্ত অ্যাকশনের মধ্যে শারীরিক সৌন্দর্যের চূড়ান্ত উপস্থাপনে নারিকো দুই হাতে শত্র“র জঙ্গল সাফ করতে করতে এগিয়ে চলে সামনের দিকে।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top