শিরোনাম

মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী 20, 2018 - বন্ধ হচ্ছে উইকিপিডিয়ার ডেটা ছাড়া তথ্যসেবা | মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী 20, 2018 - বাজারে এলো সিউ কম্প্যাক্ট ডেস্কটপ নেটওয়ার্ক লেবেল প্রিন্টার | মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী 20, 2018 - জুতা পরে হাঁটলেই চার্জ হবে ফোন | মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী 20, 2018 - নতুন সংস্করণে আসুসের গেইমিং ল্যাপটপ | মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী 20, 2018 - টাটা নিয়ে আসছে ড্রাইভারলেস গাড়ি | মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী 20, 2018 - চার মোবাইল অপারেটর পেল ফোরজি লাইসেন্স | মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী 20, 2018 - স্যামসাংয়ের ক্ষতির কারন আইফোন ১০ | সোমবার, ফেব্রুয়ারী 19, 2018 - নতুন কনফিগারেশনে আসছে নোকিয়া ৬ | সোমবার, ফেব্রুয়ারী 19, 2018 - স্যামসাং গ্যালাক্সি জে২ এলো ফোর-জি রূপে | সোমবার, ফেব্রুয়ারী 19, 2018 - এখনই ফোরজি সেবা পাবেনা টেলিটক গ্রাহকরা |
প্রথম পাতা / অর্থনীতি / হ্যাপি হোমস এলএলসি অধিগ্রহন করেছে কাজী আইটি
হ্যাপি হোমস এলএলসি অধিগ্রহন করেছে কাজী আইটি

হ্যাপি হোমস এলএলসি অধিগ্রহন করেছে কাজী আইটি

আমেরিকার বিপিও সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান হ্যাপি হোমস এলএলসি অধিগ্রহন করেছে তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান কাজী আইটি সেন্টার লিমিটেড। ৭.৩ মিলিয়ন ডলারে এই অধিগ্রহন সম্পন্ন হয়েছে বলে জানিয়েছেন কাজী আইটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মাইক কাজী। তিনি বলেন, হ্যাপি হোমসে বর্তমানে ২০০ আমেরিকানের সাথে ৭০ জন বাংলাদেশি কাজ করছে। আরো ১০০ জন বাংলাদেশিকে অচিরেই নিয়োগ দেওয়া হবে। আগামী ২ বছরের মধ্যে আমরা হ্যাপি হোমসকে ২০ মিলিয়ন ডলারের কোম্পানিতে পরিনত করতে চাই। হ্যাপি হোমস ছাড়াও কাজী আইটি এই পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রের আরো চারটি প্রতিষ্ঠানকে অধিগ্রহন করেছে। আর এই প্রক্রিয়া চলমান থাকবে। আমরা সব সময় চাই বাংলাদেশের কর্মীরা ভালো করুক। আর এজন্যই এদেশে জনবল পেলে যুক্তরাষ্ট্রে একটা প্রতিষ্ঠান কেনার সাহস পাই আমরা। এভাবে কাজ করলে দুই দিক থেকেই লাভবান হওয়া যায়।

মাইক কাজী বলেন, নতুন বছরে আমরা ৫০ মিলিয়ন ডলারের কিছু বড় প্রতিষ্ঠান অধিগ্রহন করতে চাই। এসব প্রতিষ্ঠানে অনয়াসে ৫০০-৭০০ কর্মীর কর্মসংস্থানের সুযোগ হবে। এসব প্রতিষ্ঠানে কাজ করার জন্য কর্মীর পাশাপাশি আমরা ইনভেষ্টরও খুজছি। কর্মী নিয়োগের জন্য আমরা প্রতি শনিবার সকাল ১১ টায় ফেসবুক লাইভে থাকছি। এখানে চাকরী প্রার্থীরা যাবতীয় বিষয় সম্পর্কে জানতে পারছে। পর্যাপ্ত দক্ষ লোকের অভাবের কারণে আমরা অনেক কাজই করতে পারছিনা। এজন্য আমাদের তরুণ-তরুণীদেরকে প্রশিক্ষিত করতে হবে। সরকারকে এবিষয়ে আরো বেশিকরে পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে বলে জানান তিনি।

উল্লেখ্য, আউটসোর্সিংসহ তথ্যপ্রযুক্তি সেক্টরের বিভিন্ন বিষয়েই কাজী আইটি শুরু থেকেই সেবা দিচ্ছে। শুধু রাজধানী নয়, রাজশাহীতেও রয়েছে কাইজী আইটির নিজস্ব অফিস। সেখানে দুই শিফটে কর্মীরা আউটসোর্সিংয়ের কাজ করছেন। মাইক কাজী তার কোম্পানিকে আগামী পাঁচবছরের মধ্যে ২ বিলিয়ন ডলারের কোম্পানি হিসেবে দেখতে চান।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top