শিরোনাম

রবিবার, জানুয়ারী 21, 2018 - আকর্ষণীয় ফিচার নিয়ে বাজারে আসছে স্যামসাং গ্যালাক্সি নোট ৯ | রবিবার, জানুয়ারী 21, 2018 - বাংলালিংকের ‘হেলথলিংক ৭৮৯’ সার্ভিসে যুক্ত হল ‘ডক্টরস অ্যাপয়েন্টমেন্ট’ সুবিধা | রবিবার, জানুয়ারী 21, 2018 - গ্লোবাল ব্র্যান্ড নিয়ে এসেছে লেনোভো আউডিয়াপ্যাড ৩২০ ল্যাপটপ | রবিবার, জানুয়ারী 21, 2018 - ব্যবসায়ীদের জন্য হোয়াটসঅ্যাপ বিজনেস | রবিবার, জানুয়ারী 21, 2018 - হ্যাকিংয়ের কাবলে ওয়ানপ্লাস | রবিবার, জানুয়ারী 21, 2018 - আসছে ইন্টেল কোর আই৯ প্রসেসর এর ল্যাপটপ | রবিবার, জানুয়ারী 21, 2018 - বাণিজ্য মেলায় অপো এফ৫ বিজয়ীদের নাম ঘোষণা | শনিবার, জানুয়ারী 20, 2018 - আরও কঠিন হচ্ছে ইউটিউব থেকে উপার্জন | শনিবার, জানুয়ারী 20, 2018 - ফেসবুক হ্যাকড হলে করনীয় | শনিবার, জানুয়ারী 20, 2018 - কর্মজীবি নারীদের মানহানি বন্ধে আহব্বান |
প্রথম পাতা / সাম্প্রতিক খবর / ফিচার পোস্ট / ২০২১ সালের উইটসা কংগ্রেসের আয়োজক হতে চায় বাংলাদেশ
২০২১ সালের উইটসা কংগ্রেসের আয়োজক হতে চায় বাংলাদেশ

২০২১ সালের উইটসা কংগ্রেসের আয়োজক হতে চায় বাংলাদেশ

ওয়ার্ল্ড ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যান্ড সার্ভিস অ্যালায়েন্সের (উইটসা) তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক ওয়ার্ল্ড কংগ্রেস অন আইসিটির (ডব্লিউসিআইটি) আয়োজক হতে চায় বাংলাদেশে। ২০১৪ সালের ওয়ার্ল্ড কংগ্রেসে উইটসার চেয়ারম্যানকে ২০২১ সালে বাংলাদেশে এ কংগ্রেস আয়োজনের প্রস্তাব দিয়েছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

বৃহস্পতিবার বিকালে বাংলাদেশে কম্পিউটার কাউন্সিলে (বিসিসি) উইটসা গ্লোবাল আইসিটি এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড -২০১৪ পদক বিজয় নিয়ে এক প্রেস বিফ্রিং অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পলক এ তথ্য জানান।

bcs-witsa

পলক বলেন, ২০২১ সালে উইটসার ওয়ার্ল্ড কংগ্রেস আয়োজনে আমরা প্রস্তাব দিয়েছি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অনুমোদনক্রমে খুব শীঘ্রই আনুষ্ঠানিক প্রস্তাব পাঠানো হবে।

প্রতিমন্ত্রী জানান, সর্বশেষ কংগ্রেসে সিদ্ধান্ত হয় ২০১৬ সালের পর প্রতি বছর কংগ্রেস অনুষ্ঠিত হবে। ২০২০ সাল পর্যন্ত এ অনুষ্ঠানের আয়োজক দেশ চূড়ান্ত করা আছে। আমরা ২০২১ সালে আয়োজক হতে প্রস্তুতি নিচ্ছি। ২০২১ সাল আমাদের ডিজিটাল বাংলাদেশ ভিশন পূর্ণ হবার বছর।

এরআগে একক দেশ হিসেবে ২০১৪ সালে বাংলাদেশ প্রথমবারের মতো পাঁচটি বিভাগের মধ্যে তিনটি বিভাগেই উইটসা অ্যাওয়ার্ড পায়। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ(আইসিটি),টেলিকম অপারেটর বাংলালিংক এবং ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি এ অ্যাওয়ার্ড পায়। আইসিটি বিভাগের পক্ষে পদক গ্রহণ করেন প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির পক্ষে এর চেয়ারম্যান সবুর খান এবং বাংলালিংকের পক্ষে এর চিফ কমার্সিয়াল অফিসার শিহাব আহমেদ।

ডব্লিউআইটিএসএ এর ৮০টি সদস্য রাষ্ট্রের সমন্বয়ে গঠিত বিশেষজ্ঞ কমিটি তথ্যপ্রযুক্তি খাতের সফল ও উন্নয়নমূলক নতুন উদ্ভাবনের স্বীকৃতিতে এ অ্যাওয়ার্ড দিয়ে থাকে। বিশ্বে এ অ্যাওয়ার্ড বেশ সম্মানজনক স্বীকৃতি হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

বাংলাদেশে কম্পিউটার সমিতির (বিসিএস) সভাপতি এএইচএম মাহফুজুল আরিফের সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সচিব শ্যাম সুন্দর সিকদার।

অ্যাওয়ার্ড প্রাপ্তি নিয়ে বিসিএস সভাপতি এএইচএম মাহফুজুল আরিফ বলেন, উইটসার সহযোগি সংগঠন হিসেবে সম্মেলনের আগে আমরা বাংলাদেশ থেকে তিনটি প্রতিষ্ঠানের নাম প্রস্তাব করেছিলাম। প্রস্তাবনায় তথ্য-উপাত্তের মাধ্যমে তুলে ধরেছিলাম প্রযুক্তির ছৌঁয়ায় কিভাবে বাংলাদেশের মানুষ তাদের ভাগ্যের উন্নয়ন ঘটাচ্ছে।

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন ড্যাফোডিল ইউনিভার্সিটির প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়াম্যান মো. সবুর খান, বেসিসের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রাসেল টি আহমেদ।

Comments

comments



মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। Required fields are marked *

*

Scroll To Top