ঢাকা | বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ১৫ আষাঢ় ১৪২৯ |
২৮ °সে
|
বাংলা কনভার্টার
walton

ফস্টারে আটকে থাকা কিউকমের ২০ গ্রাহক ফেরত পেলেন ৪০ লাখ টাকা

ফস্টারে আটকে থাকা কিউকমের ২০ গ্রাহক ফেরত পেলেন ৪০ লাখ টাকা
ফস্টারে আটকে থাকা কিউকমের ২০ গ্রাহক ফেরত পেলেন ৪০ লাখ টাকা

অবশেষে এসক্রোতে আটকে থাকা অর্থ ফেরত দিয়ে শুরু হলো প্রাতারণার শিকার হওয়া ই-কমার্স ভোক্তাদের দুঃখ ঘোচার পালা। সোমবার (২৪ জানুয়ারি) দুপুরে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান কিউকমের ২০ জন গ্রাহকের ৪০ লাখ ২ হাজার ৪১৩ টাকা অর্থ ফেরত দেওয়ার মধ্য দিয়েই আলো দেখলো হঠাৎ ঝড়ে বিপর্যস্ত এই খাতটি।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব তপন কান্তি ঘোষ আজ পেমেন্ট গেটওয়ে ফস্টার করপোরেশন লিমিটেডের কাছে আটকে থাকা কিউকমের হাজার হাজার গ্রাহকের মধ্যে ৬ হাজার ৭২১ জন গ্রাহকের ক্রয়াদেশের বিপরীতে ৫৯ কোটি টাকাফেরত দেওয়ার প্রক্রিয়াটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।

এসময় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব তপন কান্তি ঘোষ বলেন, এর মধ্য দিয়ে ভোক্তাদের অর্থ ফেরতের কার্যক্রম উদ্বোধন করলাম। তবে যেসব প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মামলা আছে তাদের গ্রাহকদের টাকা এখন ফেরত দেয়া সম্ভব না। যাদের বিরুদ্ধে শুধু অভিযোগ আছে, মামলা নেই, তাদের গ্রাহকদের টাকা ফেরত দেয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে এবং হচ্ছে।

এমন জটিলতা যেনো আগামীতে না পোহাতে হয় সেজন্য নেয়া পদক্ষেপের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, কয়েকটি মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে বসেই সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানগুলোর একটি ইউনিক আইডি নাম্বার থাকবে এবং এটার রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। এই কাজের শেষের দিকে আমরা। ১৫ দিনের মধ্যে আশা করছি এটা শুরু করতে পারবো।

অনুষ্ঠানে বাণিজ্য বিভাগের কেন্দ্রীয় ডিজিটাল কমার্স সেলের প্রধান এ এইচ এম শফিকুজ্জামানের সভাতিত্বে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ডিজিটাল সেল হাফিজুর রহমান ছাড়াও এসময় অংশীজনদের মধ্যে ই-ক্যাব প্রেসিডেন্ট শমী কায়সার, সহ-সভাপতি মোঃ সাহাব উদ্দিন, পরিচালক জিয়া আশরাফ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

গত বছরের ৩০ জুন চালু হওয়া এসক্রো সার্ভিসের মাধ্যমে কিউকমের গ্রাহকেরা ১৬৬ কোটি টাকা পরিশোধ করে। কিন্তু কেউই তাদের পণ্য গ্রহণ করেনি।

ফস্টারের কাছে আটকে থাকা ৩৯৭ কোটি টাকা ছাড়াও কিউকমের গুদামে আরও ১০০ কোটি টাকার পণ্য রয়েছে।

বাংলাদেশ ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিটের তথ্য অনুযায়ী, কিউকমের ৬টি একাউন্টে গ্রাহকরা জমা করেছে ৭৯০ কোটি টাকা। লেনদেন স্থগিত থাকা এসব একাউন্টে ডিপোজিট আছে ২.৯৭ কোটি টাকা। বাকি টাকা তুলে নিয়েছে কোম্পানিটি।

ফস্টার,কিউকম,২০ গ্রাহক,৪০ লাখ টাকা
আরও পড়ুন -
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়