এশীয় অঞ্চলে নতুন রূপে ফুডপ্যান্ডা

এশীয় অঞ্চলে নতুন রূপে ফুডপ্যান্ডা
এশীয় অঞ্চলে নতুন রূপে ফুডপ্যান্ডা

এশিয়ার শীর্ষস্থানীয় ফুড ও গ্রোসারি ডেলিভারি প্ল্যাটফর্ম ফুডপ্যান্ডা সম্প্রতি ব্র্যান্ড রিফ্রেশের মাধ্যমে নিজেদেরকে আরো আকর্ষণীয় এক নতুন রূপ দান করেছে। এ বছরের এপ্রিল থেকেই বিশ্বের ৪শোরও বেশি শহরের ১২টি বাজারের ভোক্তাগণ ফুডপ্যান্ডার মোবাইল এবং ওয়েব অ্যাপ্লিকেশনের ভিজ্যুয়াল ডিজাইন এবং ইউজার ইন্টারফেসে এই নতুনত্বের ছোঁয়া উপভোগ করছেন।

ফুডপ্যান্ডার এই ব্র্যান্ড রিফ্রেশের সিদ্ধান্ত এমন একটি সময়ে এসেছে, যখন প্রতিষ্ঠানটি তাদের ফুড ডেলিভারি ব্যবসায়ের সাফল্যকে কাজে লাগিয়ে কিউ-কমার্স বা কুইক কমার্সের জগতেও প্রবেশ করেছে, যার মধ্যে রয়েছে ফুডপ্যান্ডার জনপ্রিয় সব পণ্য বিক্রয়কারী প্রতিষ্ঠানের সাথে অংশীদারিত্বের মাধ্যমে পরিচালিত ব্যবসায় প্যান্ডামার্ট ক্লাউড স্টোর।

নিজেদের সুপরিচিত প্যান্ডা লোগোতে নতুনত্বের ছোঁয়া এবং নতুন রঙের সমন্বয়ে ফুডপ্যান্ডার এই নতুন আবির্ভাব মূলত প্রতিষ্ঠানটির উন্নত গ্রাহক সেবাদানের লক্ষ্যে বেশ কিছু নতুন ব্যবসায় প্রবেশের ফলস্বরূপ। ‘বেন্টো’ নামের যে নতুন হোমস্ক্রিনটি ফুডপ্যান্ডা অ্যাপে যোগ করা হয়েছে তার সাহায্যে এখন আরো সহজে ও স্বাচ্ছন্দ্যে নিকটবর্তী জনপ্রিয় সব রেস্টুরেন্টের খাবারের তালিকা দেখে নেওয়া যাবে, সেই সাথে প্রমোশন, ডেলিভারি, পিক-আপ, শপস এবং প্যান্ডামার্টের মত সুবিধা সমূহও আরো বেশি ও সুবিধাজনকভাবে উপভোগ করা যাবে।

ফুডপ্যান্ডার স্মাইলিং প্যান্ডা মাসকটটি রীতিমতো একটি জনপ্রিয় আইকন, এর সাথে বর্তমানে আরও যুক্ত হয়েছে নতুন ডিজাইন, প্যান্ডা স্টিকার, প্যাটার্ন ও শেপ।

এপ্রিল ২০২১ থেকেই সকল অনলাইন এবং অফলাইন মাধ্যমে ফুডপ্যান্ডার এই ব্র্যান্ড রিফ্রেশটি গ্রাহকদের সামনে উপস্থাপন করা হবে। সিঙ্গাপুর, বাংলাদেশ এবং কম্বোডিয়ায় রিফ্রেশটি ইতোমধ্যেই চালু হয়ে গেছে এবং আসছে সপ্তাহগুলোতে হংকং, জাপান, লাওস, মালয়েশিয়া, মিয়ানমার, পাকিস্তান, ফিলিপাইনস, তাইওয়ান এবং থাইল্যান্ডেও এটি চালু করা হবে।

লক্ষ লক্ষ গ্রাহককে তাদের পছন্দ ও প্রয়োজন অনুসারে সুস্বাদু খাবার এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য ডেলিভারি দিয়ে ফুডপ্যান্ডা এশিয়া অঞ্চলে বিগত বেশ কিছু বছর ধরে সাফল্য ও সুনাম অর্জন করে এসেছে। বিশেষত, বৈশ্বিক মহামারিকালে তাদের সেবা ছিল অত্যন্ত প্রশংসনীয়। অ্যাপটোপিয়া’র তথ্যানুযায়ী, ২০২০ সালে বিশ্বের সবচেয়ে বেশিবার ডাউনলোড করা ফুড ডেলিভারি অ্যাপ্লিকেশনগুলোর মধ্যে ফুডপ্যান্ডার ছিলো তৃতীয়।

ফুডপ্যান্ডা
আরও পড়ুন -
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়