ঢাকা | মঙ্গলবার, ০৫ জুলাই ২০২২, ২১ আষাঢ় ১৪২৯ |
৩১ °সে
|
বাংলা কনভার্টার
walton

স্বাস্থ্যের জন্য বিপজ্জনক রেডিয়েশন ছড়ানোর শীর্ষে মটোরোলা !

স্বাস্থ্যের জন্য বিপজ্জনক রেডিয়েশন ছড়ানোর শীর্ষে মটোরোলা !
স্বাস্থ্যের জন্য বিপজ্জনক রেডিয়েশন ছড়ানোর শীর্ষে মটোরোলা !

মোবাইল ছাড়া দিন চলে না। কিন্তু সেই মোবাইলই যে রেডিয়েশন ছড়ায়, তা জানেন কি? কম বেশি সব মোবাইল থেকেই ছড়িয়ে পড়ে রেডিওফ্রিকোয়েন্সি (আরএফ)। কিন্তু তার একটি সহনমাত্রা নির্দিষ্ট করা থাকে। কিছু কিছু স্মার্টফোন সেই মাত্রা ছাড়িয়ে রেডিয়েশন ছড়ায়। যে ১০টি স্মার্টফোনে রয়েছে এমন বিপজ্জনক সম্ভাবনা? দেখে নেওয়া যাক।

একটি নতুন গবেষণা রিপোর্ট জানিয়েছে,মটোরোলা, ওয়ান প্লাস, গুগল পিক্সেল এবং অপো স্মার্টফোনে উচ্চ মাত্রার রেডিয়েশন ছড়ানোর নজির পাওয়া গিয়েছে। প্রায় সব স্মার্টফোনই রেডিওফ্রিকোয়েন্সি রেডিয়েশন (আরএফ) নির্গত করে যা স্বাস্থ্যের জন্য বিপজ্জনক হয়ে উঠতে পারে।

ব্যাঙ্কলেস টাইমসের নতুন রিপোর্টে যে তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে তাতে দেখা যাচ্ছে ,স্মার্টফোনগুলোতে উচ্চ মাত্রার আরএফ নির্গত হয়েছে। এই রেডিয়েশনের মাত্রাকে নির্দিষ্ট শোষণ অনুপাত বা 'এসএআর' মানের ভিত্তিতে র‌্যাঙ্ক দেওয়া হয়েছে। এই র‌্যাঙ্ক প্রতিটি স্মার্টফোনের বাক্সের পিছনে উল্লেখ করা থাকে। তবেই তা বাজারে বিক্রির অনুমতি পায়।

'এসএআর' মান পরিমাপ করা হয় ওয়াট প্রতি কিলোগ্রাম (W/Kg)-এ। ভারতে সহনশীল 'এসএআর' সীমা 1.66 W/Kg বলে স্থির করা হয়েছে। প্রতিবেদনে দেওয়া স্মার্টফোনের তালিকায় যে সব ফোন এই সীমার একেবারে কাছে রয়েছে তার মধ্যে বেশ কয়েকটি পাওয়া যায় ভারতেও। দেশে বিক্রি হওয়া 'এসএআর' সীমার কাছাকাছি থাকা স্মার্টফোনগুলির মধ্যে রয়েছে ওয়ান প্লাস, গুগোল এবং অপো। রিপোর্টে দেখা যাচ্ছে সারা বিশ্বের স্মার্টফোন তালিকায় মটোরলা এবং সনি এক্সপেরিয়া'র নামও রয়েছে যারা বিপজ্জনক হিসেবে চিহ্নিত।

এখানে স্মার্টফোনগুলির সম্পূর্ণ তালিকা দেওয়া হয়েছে যারা উচ্চমাত্রায় রেডিয়েশন ছড়ায়।

স্মার্টফোন কেনার আগে এসএআর লেভেল সম্পর্কে জানতে হলে ফোনের মূল বাক্সটি দেখতে হবে। এর পিছনে এসএআর সম্পর্কিত সমস্ত বিবরণ পাওয়া যাবে।

রেডিয়েশন,মটোরোলা,স্বাস্থ্যের জন্য বিপজ্জনক
আরও পড়ুন -
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়